ঢাকা, রবিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

এভিয়াট্যুর

যাত্রীদের জন্য কার রেন্টাল সেবা চালু করল এয়ার অ্যাস্ট্রা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৩ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০২৩
যাত্রীদের জন্য কার রেন্টাল সেবা চালু করল এয়ার অ্যাস্ট্রা

ঢাকা: নতুন বেসরকারি এয়ারলাইন্স এয়ার অ্যাস্ট্রা দেশের স্বনামধন্য কার রেন্টাল কোম্পানি ‘যাত্রী’র সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। এই চুক্তির আওতায় এখন থেকে এয়ার অ্যাস্ট্রার ওয়েবসাইট থেকে ভ্রমণকারী যাত্রীরা সরাসরি তাদের প্রয়োজন মতো কার রেন্টাল সার্ভিসটি নিতে পারবেন।

এছাড়াও এয়ার অ্যাস্ট্রার যাত্রীরা ‘যাত্রী সার্ভিস লিমিটেড’ থেকে বিশেষ ছাড় উপভোগ করতে পারবেন।

রোববার (২৩ জুলাই) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

সম্প্রতি এয়ার অ্যাস্ট্রার প্রধান কার্যালয়ে দুই কোম্পানির অংশীদারিত্বের উল্লেখযোগ্য মাইলফলক হিসেবে এই চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়। চুক্তিতে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাক্ষর করেন এয়ার অ্যাস্ট্রার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ এবং যাত্রী সার্ভিস লিমিটেডের ভাইস প্রেসিডেন্ট গোলাম ইশফাক।

এয়ার অ্যাস্ট্রার সিইও ইমরান আসিফ বলেন, যাত্রীর সঙ্গে অংশীদারিত্ব করতে পেরে এবং এয়ার এ্যাস্ট্রায় ভ্রমণ করা যাত্রীদের এই ভ্যালু এডেড সার্ভিস দিতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমাদের ওয়েবসাইটে কার রেন্টাল সার্ভিস যোগ করার মাধ্যমে, আমরা আমাদের গ্রাহকদের জন্য ভ্রমণের অভিজ্ঞতাকে সহজতর করছি। যাতে তারা অনায়াসে তাদের ভ্রমণের জন্য প্রয়োজনীয় পরিবহনের ব্যবস্থা করতে পারেন। এই সার্ভিসটি একটি নিরবচ্ছিন্ন এবং গ্রাহক-কেন্দ্রিক ভ্রমণ অভিজ্ঞতা দেওয়ার জন্য আমাদের প্রতিশ্রুতির সঙ্গে সারিবদ্ধ।

যাত্রীর ভাইস প্রেসিডেন্ট গোলাম ইশফাক বলেন, যাত্রীর পথচলা শুরু হয়েছিল মানুষের যাতায়াত ব্যবস্থাকে আরামদায়ক ও ঝামেলাহীন করার পাশাপাশি প্রযুক্তির মাধ্যমে পরিবহন খাতের উন্নয়ন ঘটানোর লক্ষ্য নিয়ে। এর ধারাবাহিকতায় দেশের অন্যতম স্বনামধন্য বিমান সেবা প্রতিষ্ঠান এয়ার অ্যাস্ট্রার সঙ্গে যাত্রী সার্ভিস লিমিটেডের এই যৌথ উদ্যোগ ব্যবহারকারীদের জন্য আরও সুবিধা ও ইতিবাচক কিছু নিয়ে আসবে। এটি বিমানবন্দর থেকে ভ্রমণকারীরা পরবর্তী গন্তব্যে পৌঁছানোর যাত্রাকে করে তুলবে একদমই সহজ ও নিরাপদ।

এয়ার অ্যাস্ট্রা ২০২২ সালের ২৪ নভেম্বর যাত্রা শুরু করে বর্তমানে কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, সৈয়দপুর এবং সিলেটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। এয়ার অ্যাস্ট্রার বহরে বর্তমানে তিনটি এটিআর ৭২-৬০০ এয়ারক্রাফট রয়েছে। যেগুলো ফ্রান্সে নির্মিত সর্বাধুনিক প্রযুক্তির টার্বোপ্রপ এয়ারক্রাফট এবং প্রতিটি এয়ারক্রাফট ৭০ জন যাত্রী বহন করতে সক্ষম। এয়ার অ্যাস্ট্রা যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে ফ্লাইট পরিচালনার এক বছরের মধ্যে বাংলাদেশের প্রথম বেসরকারি এয়ারলাইন্স হিসেবে ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট এসোসিয়েশন (আইএটিএ) কর্তৃক প্রণোদিত আইএটিএ অপারেশনাল সেফটি অডিট (আইওএসএ) সম্পন্ন করার প্রচেষ্টায় নিয়োজিত আছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২২ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০২৩
এমকে/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।