ঢাকা, রবিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

বাজেট

পর্যায়ক্রমে সব সরকারি দপ্তরে শুরু হবে ডি-নথি ব্যবহার

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৮ ঘণ্টা, জুন ১, ২০২৩
পর্যায়ক্রমে সব সরকারি দপ্তরে শুরু হবে ডি-নথি ব্যবহার

ঢাকা: সরকারি কাজে সিদ্ধান্ত নেওয়ায় স্বচ্ছতা ও গতি বাড়ানোর স্বার্থে বর্তমানে ব্যবহৃত ই-নথির পরবর্তী ভার্সন ডি-নথি চালু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব সরকারি দপ্তরে ডি-নথি ব্যবহার শুরু করা হবে।

 

বৃহস্পতিবার (১ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপনকালে অর্থমন্ত্রী এ কথা জানান। এই অর্থবছরের জন্য ৭ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেন তিনি।

‘জনসেবায় জনপ্রশাসন’ সম্পর্কিত অংশে মন্ত্রী বলেন, জনপ্রশাসন কাঠামোকে দেশের জনগণের দ্রুত ও মানসম্পন্ন সেবা দেওয়ার উপযোগী করে তোলার জন্য সংখ্যাগত ও গুণগত পরিবর্তন সাধনের ওপর আমরা গুরুত্ব দিয়েছি। ২০০৯ সাল থেকে ২০২৩ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত রাজস্ব খাতে বিভিন্ন গ্রেডের ৭ লাখ ৫০ হাজার ৪৪১টি পদ সৃষ্টি করা হয়েছে এবং জনপ্রশাসনের গুরুত্বপূর্ণ শূন্য পদে ২০১০ সাল থেকে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে ৪০ হাজার ৪৭১ জন ক্যাডার কর্মকর্তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা, ২০২৩ প্রণয়নের কার্যক্রম চলমান এবং সরকারি চাকরি (সংশোধন) আইন, ২০২৩ প্রণয়নের কার্যক্রমও হাতে নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন অর্ডিন্যান্স, ১৯৭৭ রহিত ও যুগোপযোগী করে বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশন আইন, ২০২৩ প্রণয়ন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সেবামুখী মানসিকতা গঠন ও দক্ষতা উন্নয়নে দেশে-বিদেশে যুগোপযোগী প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। চাকরিকালীন অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক প্রশিক্ষণ এবং মেধাভিত্তিক বৃত্তি ও উচ্চশিক্ষার সুযোগ সম্প্রসারণের ফলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দক্ষতা বাড়ছে। কর্মকর্তা-কর্মচারীগণের দক্ষতা বৃদ্ধি ও মানসিকতা উন্নয়নের পাশাপাশি দ্রুততার সঙ্গে সেবা দেওয়ার জন্য ডিজিটাল অবকাঠামো ও পদ্ধতি প্রবর্তন করা হচ্ছে। সব সরকারি সেবা পাওয়ার জন্য ‘মাই গভ’ ও ‘একসেবা’  নামে প্ল্যাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। মাই গভের সেবাগুলো সম্পর্কে কল সেন্টারের মাধ্যমে জানার জন্য ‘৩৩৩' চালু আছে।

অর্থমন্ত্রী জানান, ডিজিটাল আইডেন্টিটি ভেরিফিকেশনের  জন্য ‘পরিচয়’ সফটওয়্যার তৈরির কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সরকারি কাজে সিদ্ধান্ত নেওয়ায় স্বচ্ছতা ও গতি বাড়ানোর স্বার্থে বর্তমানে ব্যবহৃত ই-নথির পরবর্তী ভার্সন ডি-নথি চালু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব সরকারি দপ্তরে ডি-নথি ব্যবহার শুরু করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৮ ঘণ্টা, জুন ১, ২০২৩
এমআইএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।