ঢাকা, শনিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ শাবান ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায়

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৫৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০২৩
দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তেঁতুলিয়ায় তীব্র শীতে বিপাকে দিনমজুররা

পঞ্চগড়: হিমালয় কন্যা খ্যাত দেশের সর্ব উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ের ওপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ। কনকনে শীতে নাস্তানাবুদ হয়ে পড়েছে জনজীবন।

তবে সকাল ৯টার পরে সূর্যের মুখ দেখা গেলেও নেই উত্তাপ।

সোমবার (৯ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় রেকর্ড করা হয়, ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা চলতি মৌসুমে পঞ্চগড়ের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

এদিকে রাত থেকে হিম শীতল বাতাসের সঙ্গে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির ফোটার মতো ঝরে পড়া ঘনকুয়াশা ঠাণ্ডাকে আরও কঠিন করে তুলেছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছে জেলার দুস্থ ও খেটে খাওয়া লোকজন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তীব্র শীত উপেক্ষা করে জীবিকার তাগিদে কাজের সন্ধানে ছুটে চলছেন তারা।

জমির উদ্দীন নামে এক দিনমজুর বাংলানিউজকে বলেন, ঠাণ্ডা ও ঘনকুয়াশার কারণে সকালে কাজে যেতে পারছি না। যেখানে সকাল ৬টার সময় কাজে যাওয়ার কথা সেখানে যেতে হচ্ছে ৯টার পর।

আমির হোসেন নামে এক পাথর শ্রমিক বাংলানিউজকে বলেন, গরম কাপড় না থাকায় ঠিক মতো বাড়ি থেকে বের হতে পারছি না। সরকারি বা বেসরকারিভাবে যদি কেউ শীত বস্ত্র দেয়, তাহলে আমার জন্য একটু ভালো হবে।

ঢাকা থেকে আসা আব্দুল জব্বার বাংলানিউজকে বলেন, ভোরে গাড়ি থেকে নেমেছি। হাত -পা বরফের মতো ঠাণ্ডা হয়ে গেছে। গ্রামের বাড়িতে যেতে পারছি না। রাস্তার পাশে আগুনে তাপ নিচ্ছি তবুও ঠাণ্ডা যাচ্ছে না।

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রের পর্যবেক্ষক রোকনুজ্জামান বাংলানিউজকে বলেন, গত কয়েকদিন থেকে তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ওঠা-নামা করছে। আজ সকাল ৯টায় ৭ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। যা সারাদেশের মধ্যে সর্বনিম্ন। আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে আরও একটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০৫৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৯, ২০২৩
জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।