ঢাকা, রবিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২১ শাবান ১৪৪৫

ক্রিকেট

মিরাজের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে বরিশালের ‘প্রথম’ জয়

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
মিরাজের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে বরিশালের ‘প্রথম’ জয় ছবি: শোয়েব মিথুন

দুর্দান্ত বোলিংয়ে রংপুর রাইডার্সকে বড় সংগ্রহ গড়তে দেননি সাকিব আল হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজরা। পরে ব্যাট হাতেও ঝড় তোলেন মিরাজ; তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়ে ফিফটি তুলে নেন ইব্রাহীম জাদরান।

আর তাতে ভর করে চলতি বিপিএলে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নিল ফরচুন বরিশাল।

 

আসরের সপ্তম ম্যাচে আজ রংপুরকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে সাকিববাহিনী। মিরপুর শেরে বাংলায় টস হেরে শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে বরিশালের সামনে ১৫৯ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দিয়েছিল রংপুর। জবাবে ৪ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় বরিশাল।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে প্রথম ওভারেই ওপেনার চতুরঙ্গা ডি সিলভার (১) উইকেট হারায় বরিশাল। এরপর আরেক ওপেনার আনামুল হক বিজয় (১৫) ফেরেন দলকে ১৮ রানে রেখে। কিন্তু সেখান থেকেই ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই শুরু করেন জাদরান ও মিরাজ। দুজন মিলে ৮৪ রানের জুটি গড়েন। আর তাতেই জয়ের ভিত্তি পেয়ে যায় বরিশাল।

ব্যাট হাতে দারুণ সব স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছোটান মিরাজ। দলীয় সংগ্রহ ১০০ পার হওয়ার পর বিদায় নেন এই ডানহাতি অলরাউন্ডার। কিন্তু এর আগে তার ব্যাট থেকে আসে ২৯ বলে ৫ চারে ৪৩ রানের ঝলমলে এক ইনিংস। মিরাজের বিদায়ের পর জাদরান আরও কিছুক্ষণ ক্রিজে টিকে ছিলেন। দারুণ ফিফটিতে এই আফগান ব্যাটার দলকে জয়ের পথেই রাখেন। ৪১ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৫২ রান করে বিদায় নেন তিনি। এরপর ইফতিখার আহমেদ ও করিম জানাত জুটিতে জয় নিশ্চিত হয় বরিশালের। ইফতিখার ২৫ রানে এবং জানাত ২১ রানে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে বরিশালের আমন্ত্রণে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই ওপেনার নাঈম শেখকে হারায় রংপুর। সাকিব আল হাসানের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন নাঈম। শুরুর ধাক্কার পরও রানের চাকা সচল রাখেন আরেক ওপেনার রনি তালুকদার। আগের ম্যাচে দুর্দান্ত এক ফিফটি করে হয়েছিলেন জয়ের নায়ক। আজও দারুণ এক ইনিংস খেলেন তিনি। যদিও ফিফটি ছুঁতে পারেননি, তার আগেই বিদায় নিতে হয়। চতুরঙ্গা ডি সিলভার বলে বোল্ড হোওয়ার আগে ২৮ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৪০ রান করেন তিনি।

রনির বিদায়ের আগে সাজঘরে ফেরেন মেহেদী হাসান (৬) ও সিকন্দার রাজা (২)। ফলে ৭৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে চাপের মুখে পড়ে রংপুর। ধীরে ধীরে কমতে থাকে রানরেট। একপ্রান্ত দিয়ে আসা-যাওয়ার মিছিল চললেও অন্য প্রান্তটি আগলে রাখেন মালিক। ইনিংস গড়তে কিছুটা সময় নেন তিনি। এর মধ্যে অবশ্য নুরুল হাসান সোহান (১২), বেন হাওয়েল (৫) ও আজমতউল্লাহ ওমরজাইদের (১) বিদায় দেখতে হয় তাকে।  

তবে অষ্টম উইকেটে রবিউল হকের সঙ্গে ২৬ বলে অবিচ্ছিন্ন ৪১ রানের জুটি করেন ডানহাতি এই ব্যাটার। সেই পথে তুলে নেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ৭৪ তম ফিফটি। তাতে রংপুরও পায় লড়াই করার মতো সংগ্রহ। ইনিংসের শেষ বলে ছক্কা মেরে চমক দেখান ১৫ বলে ১৮ রান করা রবিউল।

বরিশালের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন চতুরঙ্গা ডি সিলভা ও মেহেদী হাসান মিরাজ। একটি করে শিকার করেন সাকিব, এবাদত হোসেন ও করিম জানাত।  

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

রংপুর রাইডার্স- ২০ ওভারে ১৫৮/৭ (রনি ৪০, মালিক ৫৪*; মিরাজ ২১/২, চতুরাঙ্গা ৩০/২, সাকিব ১৯/১)

ফরচুন বরিশাল- ১৯.২ ওভারে ১৬২/৪ (ইব্রাহীম জাদরান ৫২, মিরাজ ৪৩; সিকান্দার রাজা ১৪/২, রাকিবুল ২৪/১)

ফলাফল: বরিশাল ৬ উইকেটে জয়ী

ম্যাচ সেরা: মেহেদী হাসান মিরাজ (বরিশাল)।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।