ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

ক্রিকেট

‘ক্রিকেট খেলে, টিভিতে দেখায়; কিন্তু লিটনরাও মানুষ’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩২৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৯, ২০২৪
‘ক্রিকেট খেলে, টিভিতে দেখায়; কিন্তু লিটনরাও মানুষ’

‘কোচ, মাহমুদুল হাসান জয় ও জাকির হাসানের জুটিতে তো রান আসছে না...’ প্রশ্ন শুনে নিক পোথাস বললেন, ‘আপনি বলছেন এখনও আসেনি? কে জানে, সামনের ম্যাচেই ওরা আপনাকে অবাক করে দিতে পারে...’। এভাবেই পুরো সংবাদ সম্মেলনে শিষ্যদের আগলে রাখলেন জাতীয় দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ নিক পোথাস।

শনিবার থেকে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে দ্বিতীয় টেস্ট। চন্ডিকা হাথুরুসিংহের অনুপুস্থিতিতে কোচের দায়িত্বে তার সহকারী নিক পোথাস। তার কাছে প্রশ্ন ছিল লিটন দাসকে নিয়ে। সময়টা ভালো কাটছে না এই উইকেটরক্ষক ব্যাটারের।  

তৃতীয় ওয়ানডের দল থেকে বাদ পড়েন। প্রথম টেস্টেও খুব ভালো কিছু করতে পারেননি। এর মধ্যে দ্বিতীয় ইনিংসে তার প্রথম বলেই ডাউন দ্য উইকেটে এসে আউট হওয়া নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। মানসিকভাবে এখন কেমন আছেন লিটন? 

উত্তরে পোথাস বলেন, ‘হ্যাঁ, আমাদের কথা হয়েছে। লিটন ভালো অবস্থায় আছে। ঝামেলাটা হচ্ছে লিটনের ওপর চাপটা বাইরে থেকে আসছে। আমার মনে হয় লিটনকে শুধু ওর মতো থাকতে দেওয়া উচিত। এরপর ও তার সেরাটা দেখিয়ে দেবে। ’ 

‘যদি আমরা মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওর পেছনে লেগে থাকি, তাহলে হবে না। আমরা ভুলে যাই এই ছেলেরা ক্রিকেট খেলে বা তাদের টিভিতে দেখায় বলে; যে ওরাও মানুষ। এজন্য যদি আমরা তাদের মানুষের মতোই দেখি, আর তাকে তার সেরাটা দেওয়ার সুযোগ দেই; আমি নিশ্চিত সে আপনাদের রেজাল্ট দেখিয়ে দেবে। ’

শুধু লিটনই নন, সিলেটে প্রথম টেস্টে ভালো করতে পারেনি বাংলাদেশের পুরো ব্যাটিং ইউনিটই। ১৮৮ ও ১৮২ রানে অলআউট হয়েছেন দুই ইনিংসে। মুমিনুল হক ছাড়া আর কেউ হাফ সেঞ্চুরিও করতে পারেননি। এমন ব্যাটিংয়ের পেছনে অনভিজ্ঞতাকে কারণ হিসেবে বলছেন পোথাস।

তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় আমরা আসল ব্যাপারটাই ভুলে যাচ্ছি যে আমাদের খুবই তরুণ ও অনভিজ্ঞ একটা দল। এর আগে অনেক এলিটদের একটা দল ছিল। এখন আমাদের আবার তৈরি করতে হচ্ছে। আমরা একটা ব্যাপারেই সবাইকে অনুরোধ করবো- ধৈর্য ধরুন। ’

‘ওরা খুব খুব ভালো তরুণ, কিন্তু তারা তরুণ খেলছে এমন একটা দলের বিপক্ষে যারা অভিজ্ঞ। শেখার জন্য তাদের সময় লাগবে। আমরা আমাদের বাচ্চাদের কাছেও আলাদা কিছু প্রত্যাশা করি না। আমরা তাদের নতুন একটা পরিবেশে দিয়ে এটা আশা করি না তারা ওটার এক্সপার্ট হয়ে যাবে। এজন্যই ওরা স্কুলে যায়। এই দলটা অসাধারণ, এখন না করে দুই বছর তাদের বিচার করুণ। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৩২৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৯, ২০২৪
এমএইচবি/আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।