ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮ শাবান ১৪৪৫

ক্রিকেট

ক্যারিবীয়দের উড়িয়ে জয়ে ফিরল ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৫ ঘণ্টা, মার্চ ১২, ২০২২
ক্যারিবীয়দের উড়িয়ে জয়ে ফিরল ভারত

নারী ওয়ানডে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে ১০৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল ভারতীয় নারী ক্রিকেট দল। কিন্তু পরের ম্যাচেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মুখ থুবড়ে পড়েন মিতালি রাজরা।

তবে তৃতীয় ম্যাচেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে উড়িয়ে জয়ে ফিরেছে তারা।

শনিবার ক্যারিবীয়দের ১৫৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে ভারত।  

হ্যামিলটনের সিডন পার্কে ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছেন ভারতের স্মৃতি মান্ধানা ও হারমানপ্রীত কউর। তাদের জোড়া সেঞ্চুরিতে ভারত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩১৭ রান তুলে। মান্ধানা ওপেন করতে নেমে ১১৯ বলে ১২৩ রানের ইনিংস খেলেন। ১৩টি চার ও ২টি ছক্কায় নিজের ইনিংস সাজান তিনি। পাঁচে ব্যাট করতে নেমে হারমানপ্রীত করেন ১০৭ বলে ১০৯ রান। ১০টি চার ও ২টি ছয় মারেন তিনি।

অবশ্য একসময় ৭৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়েছিল ভারত। সেখান থেকে মান্ধানা-হারমানপ্রীত জুটি বদলে দেয় ম্যাচের গতিপ্রকৃতি। চতুর্থ উইকেট জুটিতে ১৮৪ রান যোগ করেন তারা। তাদের সৌজন্যেই ৩০০ রানের গণ্ডি পার করতে পারে ভারত।

৩১৮ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে উইন্ডিজ শুরুটা ভালোই করেছিল। দুই ওপেনার দিয়েন্দ্রা ডটিন ও হেলি ম্যাথিউজের ব্যাটে ভর করে ক্যারিবিয়ানরা ১২ ওভারেই ১০০ রান তোলে ফেলে। এরপর স্নেহ রানার বলে মেঘনা সিংয়ের হাতে ক্যাচ তুলে ফিরে যান ডটিন (৬২)। এরপর ভারতীয় বোলারদের দাপটে কোনো ক্যারিবিয়ান ব্যাটারই আর ক্রিজে দাঁড়াতে পারেননি। নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারাতে থাকে তারা। ৪১ ওভারের মধ্যেই ১৬২ রানে অলআউট হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।  

ভারতের পক্ষে স্নেহ রানা তিন উইকেট শিকার করেছেন। মেঘনা পেয়েছেন দুটি উইকেট। এছাড়া ঝুলন গোস্বামী, রাজেশ্বরী গায়কোয়াড় ও পূজা বস্ত্রকার পেয়েছেন একটি করে উইকেট।  

আজ এক উইকেট নিয়েই নারী বিশ্বকাপের ইতিহাসে সর্বাধিক উইকেট সংগ্রাহকের তালিকায় এক নম্বরে চলে গেলেন পশ্চিমবঙ্গের নদিয়ার মেয়ে ঝুলন। তার ঝুলিতে এখন ৪০টি উইকেট। ৩৯ বছর বয়সী এই পেসার টপকে গেলেন ৩৯ উইকেট নেওয়া অস্ট্রেলিয়ার লিন ফুলস্টনকে।

৩ ম্যাচে ২ জয় নিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে এসেছে ভারত। ২ ম্যাচে সমান জয় নিয়েও নেট রানরেটে পিছিয়ে থাকায় দুইয়ে নেমে গেছে অস্ট্রেলিয়া। তিন ও চারে থাকা নিউজিল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকার পয়েন্টও সমান ৪ করে। তবে প্রোটিয়া নারীরা এক ম্যাচ কম খেলেছে। ২ ম্যাচ খেলে ২টিতেই হেরে তালিকার নিচের দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। আর ৩ ম্যাচের সবগুলোতেই হেরে সবার শেষ অবস্থান পাকিস্তানের।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৪ ঘণ্টা, মার্চ ১২, ২০২২
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।