ঢাকা, বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৯ মে ২০২৪, ২০ জিলকদ ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চট্টগ্রামে যুবলীগ নেতার নেতৃত্বে সাংবাদিকের ওপর হামলা, গ্রেপ্তার ৭

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
চট্টগ্রামে যুবলীগ নেতার নেতৃত্বে সাংবাদিকের ওপর হামলা, গ্রেপ্তার ৭ হামলায় আহত সাংবাদিক সেলিম

চট্টগ্রাম: দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের সংঘর্ষের ভিডিও ধারণ করতে গিয়ে হামলায় আহত হয়েছেন চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের স্টাফ ক্যামেরাপারসন সেলিম উল্লাহ।  

রোববার (২১ এপ্রিল) রাত সোয়া ১০টার দিকে নগরের মনসুরাবাদ ডিবি অফিসের পাশে ঘটনাটি ঘটে।

 

এলাকার আধিপত্যকে কেন্দ্র করে স্থানীয় যুবলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেন ও তার অনুসারীদের সঙ্গে প্রতিপক্ষের সংঘর্ষ বাঁধে।   

হামলায় আহত সেলিম জানান, ঘটনা চলাকালে তিনি ভিডিও ধারণ করছিলেন।

এ সময় তার ওপর হামলা চালায় সাদ্দাম হোসেন এবং তার অনুসারীরা। মারতে মারতে তাকে নিয়ে যায় পাশের একটি খালি জায়গায়। সেখানে মারধর ও অকথ্য ভাষায় গালাগালির একপর্যায়ে তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা চালায় সন্ত্রাসীরা। স্থানীয়রা এগিয়ে এলে সাদ্দাম সহ তার বাহিনীর সদস্যরা পালিয়ে যায়। সন্ত্রাসীরা তার ভিডিও ধারণ করা মোবাইলটিও ভেঙে ফেলে।  

পরে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিক্যালে জরুরি বিভাগে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয় আহত সাংবাদিক সেলিমকে। তাঁর চোখে এবং পায়ের লিগামেন্টে আঘাত লেগেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।  

এদিকে হামলার ঘটনায় রাতেই মামলা করা হয় ডবলমুরিং থানায়। মামলায় এখন পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে এখনো পলাতক রয়েছে মূলহোতা সাদ্দাম হোসেন।  

ডবলমুরিং থানার ওসি ফজলুল কাদের পাটোয়ারী বলেন, সাদ্দাম সহ পলাতক অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। সবাইকেই আইনের আওতায় আনা হবে। ঘটনাটি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।  

স্থানীয়রা জানান, নগরের মনছুরাবাদ এলাকায় ফুটপাতে অবৈধ ফার্নিচার মার্কেট গড়ে তোলা সাদ্দাম মূলত একজন কিশোর গ্যাং লিডার। শুধু ফুটপাত নয় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের বিশাল জায়গা দখলে নিয়ে সাদ্দাম গড়ে তুলেছে ফার্নিচারের গোডাউন। তার বাহিনীর চাঁদাবাজি, ইভটিজিং, ছিনতাই সহ নানা অপকর্মে অতিষ্ঠ স্থানীয়রা।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২২, ২০২৪
পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।