ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

বৃষ্টিভেজা সমাবেশে মমতা বললেন ‘চেয়ার চাই না, বিজেপি বিদায় নিক’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫৩ ঘণ্টা, জুলাই ২১, ২০২৩
বৃষ্টিভেজা সমাবেশে মমতা বললেন ‘চেয়ার চাই না, বিজেপি বিদায় নিক’

কলকাতা: তৃণমূল কংগ্রেস ২১ জুলাই দিনটিকে শহীদ দিবস হিসেবে পালন করে থাকে। দিবসটি উপলক্ষে পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি জেলা থেকে লাখো কর্মী-সমর্থকের সমাগম হয় কলকাতায় মমতার সমাবেশে।

নেত্রীর বক্তৃতা চলাকালে নামে বৃষ্টি নামে। মঞ্চে বসে থাকা প্রায় সবাই ছাতা খুলে বসেন। কিন্তু মমতা একইভাবে নিজের ভাষণ চালিয়ে যান। মাঝে মাঝে শাড়ির আঁচল দিয়ে মুখে পড়া বৃষ্টির পানি মুছে নেন।  

তার ভাষণের আগাগোড়াই ছিল সম্প্রতি বিজেপি-বিরোধীদের নিয়ে তৈরি নতুন জোট ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টাল ইনক্লুসিভ অ্যালায়েন্স, সংক্ষেপে যার নাম ‘ইন্ডিয়া’ এবং বিজেপি নিয়ে।

একুশের সভামঞ্চ থেকে মমতা বোঝালেন, ইন্ডিয়ার পাশে থেকেই তার দল তৃণমূল লড়াই চালিয়ে যাবে। শিগগিরই জোটের প্রতিনিধিরা হিংসা-বিধ্বস্ত মণিপুরেও যাবেন বলে এদিন জানিয়েছেন তৃণমূল প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ ছাড়া আগামী বছরের লোকসভা ভোটের আগে চরম কিছু ঘটারও আশঙ্কা করছেন এই নেত্রী।

কর্মী-সমর্থকদের উদ্দেশে মমতা বলেন, চব্বিশের লোকসভায় বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়া’ লড়াই করবে বিজেপির বিরুদ্ধে।  

জোটের শরিক হয়েও তিনি কোনো পদ চান না। শুধু কেন্দ্রের মোদি সরকারকে হারিয়ে দেওয়াই তার লক্ষ্য। আর সেই লক্ষ্যে রাজ্যবাসীকে পাশে চেয়েছেন তিনি।  

আগামী বছরের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে হঠাতে জোট বেঁধেছে সমমনা ২৬টি রাজনৈতিক দল। সেই জোটের নাম ‘ইন্ডিয়া’ দিয়েছেন মমতাই।

এদিন মমতা বলেন, আজ ভারতবর্ষে যে লড়াই হোক, সেটি হবে ইন্ডিয়ার ব্যানারে। জিতেগা ইন্ডিয়া- এই ব্যানারে হবে। আমি চেয়ারের কেয়ার করি না। আমাদের কোনো চেয়ার চাই না। পরিষ্কার বলছি, আমরা চাই বিজেপি দেশ থেকে রাজনৈতিকভাবে বিদায় নিক। আর বিজেপিকে সহ্য করা যাচ্ছে না। সব সীমা ওরা লঙ্ঘন করে ফেলেছে।

তিনি বলেন, ইন্ডিয়া লড়বে। তৃণমূল পতাকা নিয়ে সৈনিকের মতো পাশে থাকবে। আমাদের চাওয়ার কিছু নেই। শুধু চাই, মোদি হারুক, ইন্ডিয়া জিতুক।  

এরপরই কর্মী-সমর্থকদের আগামীর কর্মসূচি বেঁধে দেন নেত্রী। তিনি বলেন, এবার বিজেপি নেতাদের বাড়ি ঘেরাও হবে। মমতার সঙ্গে একই সুর তোলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, বাংলার ব্লকে ব্লকে বিজেপি নেতাদের তালিকা তৈরি করুন। আগামী ৫ আগস্ট বিজেপি নেতাদের বাড়ি ঘেরাও করুন। বয়স্কদের ছাড় দেবেন। আগামী ৫ আগস্ট সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কোচবিহার থেকে কাকদ্বীপ ৩৪১টি ব্লকে বিজেপি নেতাদের বাড়ি ঘেরাও কর্মসূচি চলবে। তারপর দিল্লির দফতরও ঘেরাও হবে। দিল্লির বহিরাগতদের কাছে মাথানত করব না।

এদিন মমতা বলেছেন, বিজেপি ফেক ভিডিও তৈরি করে অশান্ত পরিস্থিতি তৈরি করছে। আমি সবাইকে বলে দিতে চাই, বিজেপি পরিকল্পনা করছে, ফেক ভিডিও করবে। পুলওয়ামার মতো, সিনেমার মতো। সেই ভিডিও করে বাংলাকে অসম্মান করার পরিকল্পনা করছে।

তিনি বলেন, ‘ইন্ডিয়া’র মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে আমি মণিপুর যেতে চাই। এ নিয়ে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে কথাও হয়েছে। আমরা সেখানে গিয়ে মানুষের সঙ্গে কথা বলতে চাই। বলতে চাই, সারাদেশ আপনাদের পাশে রয়েছে। সবাই রাজি থাকলে আমরা ‘ইন্ডিয়া’র মুখ্যমন্ত্রীরা মণিপুরে যাব।

সভামঞ্চ থেকে মোদির উদ্দেশে মমতা বলেন, আপনার (মোদি) মনটা বড় করুন। আপনি বিদেশে গিয়ে দেশের জন্য কাঁদছেন। আর আপনাদের জন্য দেশের মানুষ কাঁদছে। আপনার মনে মা-বোনেদের প্রতি এতটুকু ভালবাসা নেই? একদিন এই নারীরাই আপনাদের ছুড়ে ফেলে দেবে।  

এ ছাড়া বৃষ্টিভেজা মঞ্চ থেকে ঐক্যবদ্ধ ‘ইন্ডিয়া’র বার্তা দেন মমতা। পাশাপাশি পঞ্চায়েত ভোটে তৃণমূলকে জেতানোর জন্য ধন্যবাদ জানান রাজ্যবাসীকে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৫ ঘণ্টা, ২১ জুলাই, ২০২৩
ভিএস/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।