ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

পশ্চিমবঙ্গে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার বাংলাদেশি কিশোরী, গ্রেপ্তার ৪

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১০ ঘণ্টা, আগস্ট ১৯, ২০২৩
পশ্চিমবঙ্গে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার বাংলাদেশি কিশোরী, গ্রেপ্তার ৪

কলকাতা: কাজের প্রলোভন দেখিয়ে এক বাংলাদেশি কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে ভারতীয় ৪ যুবক। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করেছে দেশটির পুলিশ।

কলকাতা থেকে বাংলানিউজের সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট ভাস্কর সরদার জানিয়েছেন, কাজের সন্ধানে দালাল চক্রের মাধ্যমে অবৈধভাবে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে চলে এসেছিল তিন কিশোরী। তাদের মধ্যেই একজনকে কাজের প্রলোভন দেখিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে দালাল চক্রের চার সদস্য।

ঘটনাটি ঘটে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁর বাগদা এলাকায়। অভিযুক্ত সবাইকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, কলকাতায় পরিচালিকার কাজ দেওয়ার নামে ওই তিন কিশোরীকে ভারতে নিয়ে এসেছিল দালাল চক্র। গতকাল শুক্রবার (১৮ আগস্ট) রাতে অভিযুক্ত দালালসহ মোট চারজন এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে চলে যায়। অন্য দুজন পরিস্থিতি টের পেলে পালিয়ে গিয়েছিল।

পরে স্থানীয়রা ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। সেখানে ভুক্তভোগী অভিযোগ করলে মামলা নেয় বাগদা পুলিশ। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হয়।

শনিবার (১৯ আগস্ট) এসব তথ্য নিশ্চিত করে বাগদা থানা পুলিশ জানিয়েছে, গ্রেপ্তার যুবকদের নাম সনৎ বৈরাগী, প্রথম মণ্ডল, হিরো দাস ও প্রদীপ বিশ্বাস। তদন্তের স্বার্থে তাদের পুলিশি হেফাজতে পাঠানোর আবেদন জানানো হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় আইন অনুযায়ী পকসো আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।

ভুক্তভোগীকে স্থানীয় হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে সে পুলিশি হেফাজতে রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১১০ ঘণ্টা, আগস্ট ১৯, ২০২৩
ভিএস/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।