ঢাকা, শনিবার, ৮ আষাঢ় ১৪৩১, ২২ জুন ২০২৪, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

ত্রিপুরায় বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিলো সিপিআইএম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০০ ঘণ্টা, মে ১১, ২০২৪
ত্রিপুরায় বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিলো সিপিআইএম সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন জিতেন চৌধুরী। 

আগরতলা,(ত্রিপুরা): রাজ্যজুড়ে সাত দিনব্যাপী আন্দোলন এবং ডেপুটেশন কর্মসূচির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিপিআইএম দলের ত্রিপুরা রাজ্য কমিটি।  

শনিবার (১১ মে) রাজধানী আগরতলার মেলার মাঠ এলাকার সিপিআইএম দলের ত্রিপুরা রাজ্য কমিটির অফিসে এক সংবাদ সম্মেলন করে এ কথা জানিয়েছেন দলের রাজ্য সম্পাদক জিতেন চৌধুরী।

 

সংবাদ সম্মেলনে জিতেন চৌধুরী বলেন, বৃষ্টির অভাবে রাজ্যে কৃষি কাজ হচ্ছে না, কিন্তু এ বিষয়টি নিয়ে সরকারের কোনো ধরনের পদক্ষেপ নেই। ত্রিপুরা রাজ্যজুড়ে কাজ এবং খাদ্যের তীব্র অভাব চলছে। বিশেষ করে গ্রামীণ এবং পাহাড়ি এলাকায় খাদ্যের এবং কাজের সমস্যার জর্জরিত মানুষ। সাধারণ মানুষের সমস্যা সমাধানের সরকার কোনো উদ্যোগ নিচ্ছে না। এমনকি রাজ্য সরকারের উদ্যোগে আগে যেসব কাজ করা হয়েছিল এই কাজের বকেয়া মজুরি এখনো মানুষ পাননি। পেট্রল এবং ডিজেলের তীব্র সংকট চলছে বর্তমানে। মানুষ জ্বালানি তেলের জন্য চরম দুর্ভোগের মধ্যে রয়েছে, জ্বালানি তেল সংগ্রহ করার জন্য সাধারণ মানুষকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছে। অথচ সরকার চুপ। রাজ্যের নেতা-মন্ত্রীরা অন্য রাজ্যে গিয়ে নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত। রাজ্যের বর্তমান সময়ে অচল অবস্থা দূর করার জন্য কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ।  

এই পরিস্থিতিতে আগামী ১৩ থেকে ১৮ মে ২০২৪ পর্যন্ত সারা রাজ্যব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি এবং ডেপুটেশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিপিআইএম দলের ত্রিপুরা রাজ্য কমিটি। সাত দিনব্যাপী এই কর্মসূচি রাজ্যের প্রতিটি কোণায় কোণায় আয়োজন করা হবে। ১৪ মে আগরতলায় বিক্ষোভ কর্মসূচি এবং ডেপুটেশন কর্মসূচি পালন করা হবে। রাজ্য সরকারের কাছে দাবি জানানো হবে অবিলম্বে সাধারণ মানুষের সমস্যার সমাধানের জন্য সরকার এগিয়ে আসে।  

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিপিএম নেতা এবং সাবেক মন্ত্রী মানিক দে ও বামফ্রন্ট ত্রিপুরা রাজ্য কমিটির আহ্বায়ক নারায়ণ কর।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৭ ঘণ্টা, মে ১১, ২০২৪
এসসিএন/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।