ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

আপাতত টিসিবি পণ্যের পরিমাণ বাড়ছে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

সিনিয়র করেসপন্ডন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
আপাতত টিসিবি পণ্যের পরিমাণ বাড়ছে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

ঢাকা: দেশব্যাপী এক কোটি ফ্যামিলি কার্ডধারী নিম্ন আয়ের পরিবারের মধ্যে ভর্তুকি মূল্যে জানুয়ারি মাসের পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম শুরু করেছে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। আপাতত জনপ্রতি এ পণ্যের পরিমাণ বাড়ছে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

 

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে এ কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করে তিনি এ কথা জানান।  

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ ও টিসিবির চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আরিফুল হাসান।

মন্ত্রী বলেন, গত এক বছরে এক কোটি পরিবারকে পণ্য দিতে টিসিবির পাঁচ হাজার ২০০ কোটি টাকা ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে। এজন্য আপাতত এ পণ্যের পরিমাণ বাড়ছে না। প্রতি মাসে একবার করে একটি পরিবারের মধ্যে টিসিবির পণ্য তুলে দেওয়া হবে। গরিব মানুষের যাতে কষ্ট না হয় তাই এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, আজ বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। দিনটি আমাদের কাছে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। আজকের এদিনে যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, সেটা বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালে টিসিবি করে শুরু করেছিলেন।  

টিপু মুনশি বলেন, প্রত্যাবর্তন দিবসে একটি কথা বলতে চাই, দেশটা সবার, সবাই মিলে দেশটা এগিয়ে নিতে চাই, আজ দেশে দৃশ্যমান উন্নতি হয়েছে। তবে কেউ কেউ এটা মানতে চায় না। যাই হোক, সবাই মিলেই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

অনুষ্ঠানে ২৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ফোরকান হোসেন, আরশ এন্টারপ্রাইজের সিরাজুল ইসলাম মিলন ও হ্যাপী এন্টারপ্রাইজের কামরুন নাহার হ্যাপী উপস্থিত ছিলেন। দরিদ্র পরিবারগুলোকে কম দামে পণ্য দিতে পরিবার কার্ড চালু করেছে সরকার।  

প্রধানমন্ত্রীর মহতি উদ্যোগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সার্বিক নির্দেশনায় নিম্ন আয়ের এক কোটি উপকারভোগী কার্ডধারী পরিবারের মধ্যে ভর্তুকি মূল্যে টিসিবির পণ্যাদি (তেল, চিনি ও ডাল) সাশ্রয়ী মূল্যে বিক্রয় কার্যক্রম চলমান রয়েছে। সে লক্ষ্যে জানুয়ারি মাসের বিক্রয় কার্যক্রম মঙ্গলবার থেকে ঢাকা মহানগরীসহ সারাদেশে শুরু হয়েছে। এ বিক্রয় কার্যক্রম ডিলারদের দোকান/নির্ধারিত স্থায়ী স্থাপনা থেকে সিটি করপোরেশন, জেলা-উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় ও তাদের নির্ধারিত তারিখ ও সময় পরিকল্পনা অনুযায়ী পরিচালনা করা হবে। কার্ডধারী ভোক্তা সাধারণ নির্ধারিত ডিলারদের কাছ থেকে পণ্য সামগ্ৰী ভর্তুকি মূল্যে ক্রয় করতে পারবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০ ২০২২
এসএমএকে/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad