ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ মাঘ ১৪২৯, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪ রজব ১৪৪৪

অর্থনীতি-ব্যবসা

ভোজ্যতেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে যা বলেলেন সচিব 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২২
ভোজ্যতেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে যা বলেলেন সচিব 

ঢাকা: দেশের বাজারে আপাতত ভোজ্যতেলের দাম বাড়ছে না বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এ এইচ এম সফিকুজ্জামান। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্যতেলের দাম বৃদ্ধির কারণ দেখিয়ে দেশের বাজারে রিফাইনারি অ্যাসোসিয়েশন ভোজ্যতেলের দাম বাড়ানোর আবেদন করেছে।

তবে সরকার এখনো ভোজ্যতেলের দাম বাড়ায়নি। যাচাই-বাছাই করে এ ব্যাপারে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।  

বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) বিকেলে সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে নিত্যপণ্যের (চিনি, তেল) মূল্য পদ্ধতি সংশোধন ও ব্যয় বিবরণী হালনাগাদ করতে গঠিত জাতীয় কমিটির সভা শেষে তিনি এ কথা জানান।  

প্রসঙ্গত, আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্যতেলের দাম বৃদ্ধির কারণ দেখিয়ে দেশের বাজারে সয়াবিনের দাম লিটার প্রতি ৮ টাকা পর্যন্ত বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনারস অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফেকচারার অ্যাসোসিয়েশন, যা আগামী ৮ জানুয়ারি থেকে কার্যকরও করতে চায় তারা।  

সভা শেষে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (আমদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য) এ এইচ এম সফিকুজ্জামান বলেন, আমরা ভোজ্যতেলের দাম নির্ধারণ পদ্ধতি রিভিউ করছি। আগামী মঙ্গলবার কমিটির সদস্যরা রিফাইনারি বড় কোম্পানিগুলোর কারখানা পরিদর্শনে যাবে। সেখানে তারা আমদানি মূল্য, প্যাকেজিং খরচসহ অন্য খরচ পর্যালোচনা করবে। এরপর আমরা দাম নির্ধারণ পদ্ধতি ঠিক করব। তারপর আমরা বসে তেলের দাম ঠিক করব।  

দাম কত বাড়তে পারে—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দাম বাড়বে তো পড়ে, আগে আমাদের মূল্য নির্ধারণী পদ্ধতি ঠিক করতে হবে। তারপর দাম কমানো-বাড়ানোর বিষয়। মূল্য নির্ধারণ পদ্ধতিটা ১০ বছর আগের করা। সেটা রিভিউ করব। আগামী মঙ্গলবার কারখানা পরিদর্শন করে, গবেষণা করে আমরা আবার বসব।  

রিফাইনারি অ্যাসোসিয়েশনের কোনো চাহিদা আছে কি না, জবাবে অতিরিক্ত সচিব বলেন, তাদের তো দাম বৃদ্ধির চাহিদা আছেই। আগেই তারা আবেদন করেছে। আমরা এখন বসে সরকারের সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নেব।  

আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম অনেক কমেছে, এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমেছে ঠিক, কিন্তু তার প্রভাব পড়তে সময় লাগবে। আমরা দুই আড়াই মাস দেখি। আমরা আগে মূল্য নির্ধারণ পদ্ধতি ঠিক করি, তারপর দাম বৃদ্ধির বিষয়। যখন আন্তর্জাতিক বাজারে অনেক কমে যায়, তখন আমরাও দাম সমন্বয় করে থাকি। এর আগেও আমরা দাম কমিয়েছি।  

সম্প্রতি বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনারস অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফেকচারার অ্যাসোসিয়েশন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে ভোজ্যতেল সয়াবিন ও পাম তেলের দাম বৃদ্ধির জন্য চিঠি দিয়েছে। চিঠিতে আগামী ৮ জানুয়ারি থেকে দাম বাড়ানোর বিষয়ে জানানো হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বাণিজ্য মন্ত্রণলায় বিষয়টি যাচাই-বাছাইয়ের জন্য ট্যারিফ কমিশনে পাঠায়।

বর্তমানে ১ লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকায়। ৮ টাকা দাম বাড়িয়ে ১৬৮ টাকা দাম নির্ধারণের দাবি জানানো হয় চিঠিতে।

আরও পড়ুন:
ভোজ্যতেলের দাম লিটারে আরও ৮ টাকা বাড়ানোর প্রস্তাব

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৬, ২০২২
জিসিজি/জেএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa