ঢাকা, সোমবার, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

কুসিকে ভোটের জন্য নির্বাচনী পদক পেলেন শাহেদুন্নবী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৮ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২৩
কুসিকে ভোটের জন্য নির্বাচনী পদক পেলেন শাহেদুন্নবী

ঢাকা: কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে সফলভাবে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করায় ‘জাতীয় নির্বাচনী পদক’ পেয়েছেন মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী। তার সঙ্গে আরও দুইজন এই পদক পেয়েছেন।

যাদের কৃতিত্ব হিসেবে ছাদ বাগান করাকেও আমলে নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। এর আগে বুধবার (১ মার্চ) নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিনিয়র সহকারী সচিব (প্রশিক্ষণ ও সক্ষমতা) মোহাম্মদ নুরুল হাসান ভূঞা স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে পুরস্কারের জন্য নির্বাচিতদের নাম জানানো হয়েছে।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, সম্প্রতি অবসরে যাওয়া যুগ্ম সচিব মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরীর কৃতিত্ব বা উল্লেখযোগ্য কার্যক্রম হলো- কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে সফলভাবে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন, ৩৩ গাইবান্ধা-৫ জাতীয় সংসদ উপ-নির্বাচনে তদন্ত কার্যক্রমে সহায়তা এবং কমিশন কর্তৃক অর্পিত সব দায়িত্ব দক্ষতা ও আন্তরিকতার সঙ্গে পালন করেছেন। এসব কার্যক্রম বিবেচনায় সর্বসম্মতভাবে সদ্য অবসরে নেওয়া মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরীকে জাতীয় নির্বাচনী পদক দেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়।

কুসিক নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হলেও নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়। হট্টগোল দেখা দিলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। এ নির্বাচনে বিএনপির বহিস্কৃত নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু ৩৪৩ ভোটের ব্যবধানে হেরে যান, যিনি দুইবারের মেয়র ছিলেন। ভোট গণনায় কারচুপির অভিযোগ এনে ফলাফল প্রত্যাখ্যানও করেন সাক্কু। যদিও পরবর্তীতে এ নিয়ে তিনি আর আদালতে যাননি।

রাজশাহীর আঞ্চলিক নির্বাচনী কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেনও এই পদকের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। তার কৃতিত্ব হচ্ছে- নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে পরিচালক (প্রশাসন) হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে ছাদ বাগান করে পরিবেশ বান্ধব কার্যালয় গড়তে অবদান, সাধারণ প্রশাসন ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা ও প্রাতিষ্ঠানিক উন্নয়ন সাধন, সৃজনশীল উদ্ভাবনী কার্যক্রম পরিচালনা এবং সততা ও চারিত্রিক
দৃঢ়তা বিদ্যমান, নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে কার্য সম্পাদন ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষতা, রিটার্নিং অফিসার হিসেবে সফলভাবে দায়িত্ব পালন, ভোটার শিক্ষা ও প্রচারণার মাধ্যমে নির্বাচনী প্রক্রিয়ার জনগনের অংশগ্রহণ ও সম্পৃক্ততা বাড়াতে ভূমিকা রাখা। এ জন্য মো. দেলোয়ার হোসেনকে জাতীয় নির্বাচনী পদক দেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়।

এছাড়া বগুড়ার কাহালু উপজেলা নির্বাচনী কর্মকর্তা মিস জান্নাত আরা জলিও নির্বাচন পদকের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। তার কৃতিত্ব হচ্ছে- প্রান্তিক পর্যায়ের নারীদের ভোট প্রদানে উদ্বুদ্ধকরণ ও ভোটার হতে সচেতনতা বাড়াতে উঠান বৈঠকের আয়োজন, বিভিন্ন দপ্তরের সঙ্গে সমন্বয়পূর্বক কাজে গতিশীলতা আনা,  হেল্প ডেস্ক সেবা চালু, ছাদ বাগান করে পরিবেশে বান্ধব কার্যালয় গড়তে অবদান, সেবা প্রদানে নতুন নতুন ধারণার উদ্ভাবন, কাজের মান, কর্মসম্পাদনে দক্ষতা ও শুদ্ধাচারের প্রতিফলন, ভোটার তালিকা ও জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদানে আন্তরিকতা, নির্বাচনী ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা ও নিরপেক্ষতাসহ বিভিন্ন কার্যক্রমে অর্পিত দায়িত্ব সফলভাবে পালন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৭ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০২৩
ইইউডি/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।