ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

ফুটবল

লেভারকুসেন এখন আর ‘নেভারকুসেন’ নয়

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০২৪
লেভারকুসেন এখন আর ‘নেভারকুসেন’ নয় সংগৃহীত ছবি

ম্যাচের তখন ৯০তম মিনিটের খেলা চলছে। ফ্লোরিয়ান ভাইরটজ গোল করতেই গ্যালারি থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে মাঠে নেমে পড়লেন সমর্থকরা।

মুহূর্তেই বে অ্যারেনা পরিণত হলো জনসমুদ্রে। এমনকি বাধা দিলেন না নিরাপত্তারক্ষীরাও।  

আর বাধা দিলেও বা কে শুনবে! নিজেদের ১২০ বছরের ইতিহাসে যে প্রথমবার বুন্দেসলিগার শিরোপা জিতেছে লেভারকুসেন। তাও আবার কোনো ম্যাচ না হেরে এবং পাঁচ ম্যাচ হাতে রেখেই! গতকাল ওয়ের্ডার ব্রেমেনকে ৫-০ গোলে হারানোর পর সমর্থকদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস তাই স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া।  

সবশেষ জয়ের পর ৭৯ পয়েন্ট হলো লেভারকুসেনের। যা নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বায়ার্ন মিউনিখের থেকে ১৬ পয়েন্ট বেশি। মৌসুমের বাকি কয় ম্যাচে ১৫ পয়েন্টের জন্য লড়াই হবে। ফলে বাকি সব ম্যাচ জিতলেও বায়ার্নের পক্ষে কিছুতেই লেভারকুসেনকে ধরা সম্ভব নয়। সমান ম্যাচ খেলে বায়ার্ন হেরেছে ৬ ম্যাচে। যা মূলত দুই দলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিয়েছে।

লেভারকুসেনের আগে টানা ১১ বার লিগ শিরোপা জিতে ইতিহাস গড়েছিল বায়ার্ন। তাদের কেউ সিংহাসন থেকে সরাতে পারবে, এক মৌসুম আগেও কেউ হয়তো ভাবতে পারেনি। কিন্তু লেভারকুসেন তা করে দেখিয়েছে।  

২০০৮-০৯ মৌসুমে ওলফসবুর্গের পর এই প্রথম নতুন কোনো ক্লাব বুন্দেসলিগা জিতলো। সবমিলিয়ে বুন্দেসলিগা জেতা ১৩তম ক্লাব হিসেবে নাম লিখিয়েছে লেভারকুসেন।

লেভারকুসেনকে শিরোপা জেতানো কোচ জাভি আলোনসোও ভাসছেন প্রশংসার বন্যায়। গত মৌসুমের মাঝামাঝি সময়ে যখন ক্লাবের দায়িত্ব নেন লিভারপুল ও রিয়াল মাদ্রিদের সাবেক এই মিডফিল্ডার, তখন অবনমন অঞ্চলে লড়াই করছিল লেভারকুসেন। কিন্তু আলোনসো এসে দলটিকে ছয়ে তুলে মৌসুম শেষ করেন।

এ মৌসুমে একেবারেই ভিন্নরূপে ধরা দেয় লেভারকুসেন। বায়ার্ন মিউনিখ কিংবা বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের মতো জায়ান্টদের পেছনে ফেলে টানা অপরাজিত থাকার রেকর্ড গড়ে তারা। এখন পর্যন্ত ২৯ ম্যাচের কোনোটিতেই হারেনি আলোনসোর শিষ্যরা। ২৫ জয়ের বিপরীতে ড্র করেছে ৪ ম্যাচে।

জার্মানিতে নিজের দ্বিতীয় মৌসুমেই শিরোপা সাফল্য পাওয়ায় ভীষণ খুশি আলোনসো। সাবেক এই স্প্যানিশ মিডফিল্ডার বলেন, 'আজ পরিবার, বন্ধু ও সমর্থকদের নিয়ে উপভোগ করব। কোচ হিসেবে এখানে এটাই আমার প্রথম পুরো একটি মৌসুম। অনুভূতি অবিশ্বাস্য। '

যেভাবে বায়ার্নের রাজত্ব দখল করল লেভারকুসেন

বুন্দেসলিগায় বায়ার্নের আধিপত্য ছিল এক দশকের বেশি সময় ধরে। বাভারিয়ানদের বাইরে ২০১২ সালে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড ছিল লিগ জেতা শেষ দল। সেই চিত্র বদলে দিল লেভারকুসেন। তাদের সামনে আরও দুই শিরোপা জেতার সুযোগ অপেক্ষা করছে- ইউরোপা লিগ ও জার্মান কাপ। ইউরোপার কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ওয়েস্টহ্যামকে ২-০ গোলে হারিয়েছে তারা। আর ২৫ মে জার্মান কাপের ফাইনালে তাদের অপেক্ষায় রয়েছে কাইসারস্লটার্ন।

সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে টানা ৪৩ ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে লেভারকুসেন। এই ধারা অব্যাহত রাখতে পারলে তারা ১৯৬০ সালে বেনফিকার টানা ৪৮ ম্যাচ জেতার রেকর্ড ভেঙে দিতে পারবে। এ মৌসুমে খেলা ৪৩ ম্যাচের মধ্যে, লেভারকুসেন ৩৮টিতে জয় পেয়েছে এবং ৫টিতে ড্র করেছে। গোল করেছে ১২৩টি, হজম করেছেন মাত্র ৩১টি।  

২০২৩ সালের ২৭ মে থেকে কোনো ম্যাচ হারেনি লেভারকুসেন। বুন্দেসলিগায় টানা অপরাজিত থাকার রেকর্ড এখন তাদের দখলে। এর আগে ২০১৩-১৪ মৌসুমে সাবেক কোচ পেপ গার্দিওলার অভিষেক মৌসুমে টানা ২৮ ম্যাচ জিতে রেকর্ড গড়েছিল বায়ার্ন।

লেভারকুসেন সর্বশেষ ট্রেবল জেতার কাছাকাছি পৌঁছেছিল ২০০১-০২ মৌসুমে। কিন্তু তিনটির কোনোটিই জেতা হয়নি তাদের। মাত্র এক পয়েন্টের ব্যবধানে তারা লিগ শিরোপা হারায় ডর্টমুন্ডের কাছে। এরপর চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে তারা রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারে ২-১ গোলে এবং জার্মান কাপের ফাইনালে তাদের ৪-২ গোলে হারিয়ে শিরোপা ছিনিয়ে নেয় শালকে।

তিনটি শিরোপা জেতার দ্বারপ্রান্তে গিয়েও শূন্য হাতে ফেরায় লেভারকুসেনের নাম হয়ে গিয়েছিল 'নেভারকুসেন'। সবমিলিয়ে বুন্দেসলিগায় মোট পাঁচবার রানার্স-আপ হয়েছে তারা। ১৯৯৩ সালে সর্বশেষ শিরোপার স্বাদ পেয়েছিল তারা। সেবার হের্থা বার্লিনকে হারিয়ে জার্মান কাপ ঘরে তুলেছিল তারা।  

শিরোপা উৎসবের পাশাপাশি আলোনসোকে ধরে রাখার আনন্দেও ভাসছে লেভারকুসেন। ক্লাবের প্রথম লিগ জেতানো কোচ এখনই অন্য কোথাও না যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। যদিও তাকে পেতে তোড়জোড় শুরু করেছিল নতুন কোচের সন্ধানে থাকা লিভারপুল ও বায়ার্ন।  

খেলোয়াড় হিসেবে বায়ার্নের হয়ে তিনবার বুন্দেসলিগা জেতার স্বাদ পেয়েছিলেন ৪২ বছর বয়সী আলোনসো। কিন্তু নিজের সাবেক দুই ক্লাবের ডাকে সাড়া দেননি তিনি। বরং লেভারকুসেনের সমর্থকদের ভালোবাসার 'প্রতিদান' দিতে আরও এক মৌসুম নিশ্চিতভাবে বর্তমান ঠিকানাতেই থাকছেন স্পেনের সাবেক তারকা মিডফিল্ডার।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০২৪
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।