ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ চৈত্র ১৪৩০, ১২ এপ্রিল ২০২৪, ০২ শাওয়াল ১৪৪৫

ফুটবল

তিন গ্রেটের মধ্যে পিছিয়ে রোনালদো

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৩১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৬
তিন গ্রেটের মধ্যে পিছিয়ে রোনালদো ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, রোনালদো ও রোনালদিনহো/ছবি:সংগৃহীত

দুই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার রোনালদো ও রোনালদিনহোর থেকে কোন দিকটা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে আলাদা করছে। জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের কাছে এ তিনজনের মধ্যে পার্থক্য খুবই পরিস্কার। রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ আইকনকে পিছিয়ে রাখছেন সুইডিশ তারকা।

ঢাকা: দুই ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার রোনালদো ও রোনালদিনহোর থেকে কোন দিকটা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে আলাদা করছে। জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের কাছে এ তিনজনের মধ্যে পার্থক্য খুবই পরিস্কার।

রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগিজ আইকনকে পিছিয়ে রাখছেন সুইডিশ তারকা।

ইব্রাহিমোভিচের চোখে, রোনালদো সহজাত ট্যালেন্ট নন। তার বিশ্বাস, ‘দ্য ফেনোমেনন’ খ্যাত রোনালদোর কাছে ছায়া হয়ে থাকবেন তার নামের প্রতিদ্বন্দ্বী সিআর সেভেন।

সে যাই হোক, এরই মধ্যে গ্রেটদের কাতারে জায়গা করে নিয়েছেন চারবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী রোনালদো। ব্রাজিলিয়ান রোনালদোর পদাঙ্ক অনুসরণ করে একই নামে রিয়ালে নিজেকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। পর্তুগালের জার্সিতে জিতেছেন ইউরো। অন্যদিকে, বার্সেলোনা লিজেন্ড রোনালদিনহোকে উপেক্ষা করা অসম্ভব।

ইএসপিএন ব্রাজিল’কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনজনের মধ্যে পার্থক্য তুলে ধরেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ইব্রাহিমোভিচ, ‘আমি মনে করি, দ্য ফেনোমেনন রোনালদোই সেরা। আমার কাছে, ফুটবল কি তার একটা উদাহরণ এটা। তিনি যা কিছু করেছেন তার মধ্যে এমন কিছুতে আপনি চিন্তা করেছেন ‘কী দারুণ’। তিনি যেভাবে ড্রিবলিং করতেন এবং বল নিয়ে ছুটতেন। ’

‘রোনালদো (ব্রাজিল) ছিলেন সহজাত প্রতিভাবান। তিনি যেমন ছিলেন তার জন্যই জন্মেছেন। এটা এমন ছিল না যে ট্রেনিং করে এমন উচ্চতায় পৌঁছেছেন। এ ধরনের খেলোয়াড় তৈরি করা যায় না, জন্ম থেকেই হয়। তিনি অনন্য’-যোগ করেন ইব্রাহিমোভিচ।

রোনালদিনহোকে নিয়ে ৩৫ বছর বয়সী ইব্রার অভিমত, ‘আমরা এসি মিলানে একসঙ্গে খেলেছি। যদিও তখন সে তার সেরা সময়ে ছিল না। কিন্তু, তার খেলায় আমি অভিভূত। দ্রুতগতির ড্রিবলিং এবং সে যখনই চাইতো করে দেখাতো। তাকে ঘিরে রাখা খেলোয়াড়দের মুহূর্তেই বোকা বানিয়ে ফেলতো। ’

ইউরো জয়ী বর্তমান বিশ্বসেরা রোনালদোর ব্যাপারে ইব্রাহিমোভিচের ভাষ্য, ‘ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ক্ষেত্রে, আমরা একসঙ্গে কখনো খেলিনি। এটা ভিন্ন, কারণ এটা কঠোর পরিশ্রমের ফল। এটা প্রাকৃতিক নয়। ’

এখনো দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে সবাইকে মুগ্ধ করছেন ইব্রাহিমোভিচ। ফুটবল থেকে অবসর নেওয়াটা অনেক পরের কথা। হয়তো আরো কয়েক বছর খেলে যাবেন। এমনকি ব্রাজিলে পাড়ি জমানোর ইঙ্গিতও দিয়ে রেখেছেন, ‘হয়তো আমার ব্রাজিলে যাওয়া উচিৎ, কেউই ভবিষ্যতের ব্যাপারে জানে না... হয়তো সেখানে আমি আমার খেলাটা উপভোগ করতে পারবো। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৬
এমআরএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।