ঢাকা, বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৯ মে ২০২৪, ২০ জিলকদ ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

মাদারীপুরে গরমে হাসপাতালে বাড়ছে শিশু রোগী

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
মাদারীপুরে গরমে হাসপাতালে বাড়ছে শিশু রোগী

মাদারীপুর: টানা তাপদাহে মাদারীপুরে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে বাড়ছে রোগীর চাপ। এদের মধ্যে শিশু রোগীর সংখ্যা বেশি।

স্থান সংকুলান না হওয়ায় এক বেডে থাকছে একাধিক রোগী।

প্রতিদিন শুধু মাদারীপুর জেলার আড়াইশো শয্যা হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে শত শত রোগী। এর মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যাই বেশি।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) মাদারীপুরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ৩৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত এক সপ্তাহ ধরে ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে তাপমাত্রা। ফলে জ্বর, সর্দি, কাশি, এলার্জি (একজিমা), নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। এরমধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যা তুলনামূলক বেশি।

হাসপাতালগুলোতে আসন সংকট থাকায় অনেকেই ফ্লোরে নিচ্ছেন চিকিৎসা। একসঙ্গে অনেক রোগীর চাপ থাকায় হিমশিম অবস্থা নার্স ও চিকিৎসকদের। এমন পরিস্থিতিতে বার বার পানিপান করার পাশাপাশি অপ্রয়োজনে ঘরের বাইরে না বের হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী রেহানা বেগম বলেন, প্রচণ্ড গরমে আমার মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। অবস্থা বেশি ভালো ছিল না, পরে হাসপাতালে ভর্তি করি। সাতদিন পর আজকে কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

সদর উপজেলার মোবারকদি এলাকার রানী বেগম বলেন, আমার মেয়ের শরীরে হঠাৎ প্রচণ্ড জ্বর আসে। কয়েকবার বমিও করেছে। প্রচণ্ড গরমে এই অবস্থা হয়েছে। দ্রুত হাসপাতালে ভর্তি করেছি।

মাদারীপুর জেলা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. আবু সফর হাওলাদার বলেন, প্রচণ্ড গরমে বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে প্রতিদিন শত শত রোগী ভর্তি হচ্ছে। এর থেকে বাঁচতে বেশি বেশি বিশুদ্ধ পানিপান করার পাশাপাশি বিশ্রাম নিতে হবে। বাইরে বের হলে সঙ্গে ছাতা ও খাবার পানি রাখলে রোগে আক্রান্ত হবার আশঙ্কা কমবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১১ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।