ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ শাবান ১৪৪৫

ভারত

ঠাণ্ডায় কাঁপছে পশ্চিমবঙ্গ, দার্জিলিং ৫ সিকিম ৪

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০২৩
ঠাণ্ডায় কাঁপছে পশ্চিমবঙ্গ, দার্জিলিং ৫ সিকিম ৪

কলকাতা: শীতের তীব্রতা বেড়েই চলেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গসহ বিভিন্ন রাজ্যে।  

রোববার (৮ জানুয়ারি) কলকাতা শহরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আর পর্যটনস্থল দার্জিলিংয়ে সর্বনিম্ম তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৫ এর ঘরে। সিকিমের অবস্থা আরও সংকটময়। সেখানে আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

পাশপাশি পশ্চিমবঙ্গের ৫ জেলায় শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস দিয়েছে কলকাতা আবহাওয়া দফতর।  

হাওয়া অফিস জানিয়েছে, এদিন কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রয়েছে ২২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আগামী ৩ দিন তাপমাত্রার খুব একটা পরিবর্তন হবে না।

পাশপাশি প্রবল শীতে কাঁপছে রাজ্যের রাঢ় ভূমি, বীরভূম, বাঁকুড়া জেলা। পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রামেও হাড় কাঁপানি ঠাণ্ডা পড়েছে। সন্ধ্যার পর এসব জেলায় তাপমাত্রার নেমে যাচ্ছে ৭-৮ ডিগ্রির ঘরে।  

অন্যদিকে, দুই বর্ধমান, পূর্ব মেদিনীপুর, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, হুগলিতেও ঠাণ্ডা জেঁকে বসেছে। সেই সঙ্গে শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতা জারি করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে পাঁচ জেলায়। পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং মালদহে আগামী কয়েক দিন শৈত্যপ্রবাহ বইবে।

একইভাবে রাজ্যের উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পংয়ের ঠাণ্ডা ভালোই উপভোগ করছেন পর্যটকরা। শৈল শহরের পর্যটনকেন্দ্রগুলি ভিড়ে ঠাসা। এদিন দার্জিলিংয়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৫ এর ঘরে।  

সিকিমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। প্রায় একইভাবে ঠাণ্ডা পড়েছে পুরুলিয়া, বাঁকুড়া জেলাতেও। ফলে উত্তরবঙ্গের পাশপাশি রাজ্যের পর্যটনকেন্দ্রগুলিতেও কনকনে শীত উপভোগ করছেন পর্যটকরা।

গত কয়েকদিন ধরে ঠাণ্ডায় কাবু কলকাতাবাসী। বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়রি) কলকাতায় পারদ নেমেছিল ১২ ডিগ্রির ঘরে। যা ছিল এই মৌসুমের শীতলতম দিন। কিন্তু শুক্রবার ভেঙে যায় সেই রেকর্ড। তাপমাত্রা নেমে আসে ১০ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। যা ছিল স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি কম। এরপর শনিবার থেকে কলকাতায় ১২ ডিগ্রির ঘরেই তাপমাত্রা ওঠে রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৮, ২০২৩
ভিএস/এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।