ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৯ মে ২০২৪, ১০ জিলকদ ১৪৪৫

ভারত

৩ কোটি রুপির স্বর্ণ উদ্ধার করল বিএসএফ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২৪
৩ কোটি রুপির স্বর্ণ উদ্ধার করল বিএসএফ

কলকাতা: ভারত-বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক সীমান্ত থেকে প্রায় সাড়ে চার কেজি স্বর্ণ উদ্ধার করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। এ সময় পাচারকারী সন্দেহে প্রসেনজিৎ মন্ডল নামে এক ভারতীয়কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এর আনুমানিক মূল্য ৩ দশমিক ১০ কোটি রুপির বেশি। এসব স্বর্ণ উদ্ধার করেছে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বিএসএফ এর ৫ নম্বর ব্যাটালিয়নের সদস্যরা।

বিএসএফ জানিয়েছে, চোরাকারবারিরা এসব স্বর্ণের বার বাংলাদেশ থেকে ভারতে পাচারের চেষ্টা করছিল।

বিএসএফ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে রোববার (২১ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় বিকেল ৩টার দিকে সীমান্ত কর্তব্যরত বিএসএফ সদস্যরা তিনজন দুর্বৃত্তের গতিবিধি লক্ষ্য করে। তারা প্রত্যেকেই ইছামতি নদী (আন্তর্জাতিক সীমানা) থেকে ঘাস এবং বাঁশের ঝোপের ঘন বনের মধ্য দিয়ে ভারতের দিকে প্রবেশ করেছিল। চোরাকারবারিদের দেখে তাড়া করতে থাকে বিএসএফ সদস্যরা। অনেক চেষ্টার পর এক পাচারকারীকে স্বর্ণসহ গ্রেপ্তার করেন বিএসএফ সদস্যরা। এ সময় তার কাছ থেকে দুটি বড় ও ৩০টি ছোট স্বর্ণের বার উদ্ধার হয়। প্রসেনজিৎ মন্ডলের বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনা জেলার হালদার পাড়া গ্রামে। জিজ্ঞাসাবাদে অভিযুক্ত ব্যক্তি জানান, সফলভাবে স্বর্ণ হস্তান্তর করতে পারলে তাকে ৫০০ রুপি দেওয়া হতো। কিন্তু পাচারের আগেই বিএসএফ এর তৎপরতায় গ্রেপ্তার হন তিনি। তার নামে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য গ্রেপ্তার প্রসেনজিৎকে স্বর্ণসহ কলকাতার ডিআরআই এর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিএসএফের সাউথ বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ারের ডিআইজি (জনসংযোগ) এ কে আর্য জানান, চোরাকারবারিরা গরিব ও নিরীহ মানুষকে অল্প পরিমাণ অর্থের প্রলোভন দিয়ে ফাঁদে ফেলে। কিন্তু ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে চোরাচালান বন্ধে বিএসএফ সজাগ রয়েছে। সীমান্তে যেকোনো ধরনের চোরাচালান বন্ধে বিএসএফ সম্পূর্ণভাবে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২৪
ভিএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।