ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

ভারত

বাংলা সফরের মধ্য দিয়ে মোদির ভোটের দামামা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪৭ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২৪
বাংলা সফরের মধ্য দিয়ে মোদির ভোটের দামামা

কলকাতা: ভারতের সংসদ ভোটের দামামা বাজিয়ে দিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার (১ মার্চ) প্রচারের প্রথম সফর হিসেবে বেছে নিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ।

আর সেখান থেকেই পশ্চিমবঙ্গে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস ও তার দলনেত্রীকে আক্রমণ করলেন মোদি। রাজ্যের একের পর এক উঠে আসা দুর্নীতি থেকে শুরু করে শিক্ষক নিয়োগের পাশাপাশি মোদির স্পষ্ট হুংকার এবার বাংলার শাসকদল থেকে মুখ ফেরাবে মুসলমানরাও।

সংসদ ভোটের তফসিল ঘোষণার আগেই শুক্রবার হুগলি জেলার আরামবাগে জনসভা করলেন মোদি। মঞ্চ থেকে তিনি দাবি করেছেন, তৃণমূলের অহংকার হলো তাদের একটা নিশ্চিত ভোট ব্যাংক রয়েছে। এবার তৃণমূলের সেই অহংকার চূর্ণ হবে। এবার মুসলিম মা-বোনেরাও তৃণমূলের গুণ্ডারাজকে উপড়ে ফেলতে এগিয়ে আসবে। চব্বিশের সংসদ ভোটে তৃণমূলের ধারণাও এবার ভ্রান্ত প্রমাণিত হতে চলেছে।

গত বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) গ্রেপ্তার হয়েছেন উত্তর ২৪ পরগনার ‘ত্রাস’ তথা বসিরহাটের তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখ। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে যে বসিরহাটের প্রসঙ্গ গুরুত্ব পাবে তা আগেই আন্দাজ করা গিয়েছিল। হলোও তাই। বসিরহাটের সন্দেশখালিতে নারীদের ওপর নির্যাতনের অভিযোগ নিয়ে সভা থেকে তৃণমূলকে আক্রমণ শানিয়েছেন মোদি। শুধু তাই নয়, ‘দিদি’ বলে উল্লেখ করে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেছেন মোদি।

একইসঙ্গে তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি থেকে কেন্দ্রীয় প্রকল্পের অর্থের গরমিল নিয়ে এদিন সরব হতে দেখা যায় মোদিকে। সেই সঙ্গে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু তোষণের রাজনীতির অভিযোগ তোলেন তিনি।

পাশাপাশি বিজেপি বিরোধী ইন্ডিয়া জোটের নেতাদের সমালোচনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। মোদির কথায় গোটা দেশ পশ্চিমবঙ্গের সন্দেশখালির ঘটনা দেখতে পেল। শুধু ‘ইন্ডি’ (ইন্ডিয়া জোটকে ব্যঙ্গ ইন্ডি বলেন মোদী) জোটের নেতারাই দেখতে পেলেন না। তাদের মুখে এ নিয়ে কোনো প্রতিবাদ শোনা যায়নি। জাতীয় কংগ্রেস তো সরাসরি বলছে এসবে কান দেব না, বাংলায় এসব চলতেই থাকে।

মোদির প্রশ্ন এটাই বাংলার পরিচিতি? ওরা বাংলাকে অপমান করছে না? এটা বাংলার বীরপুরুষদের অপমান নয়? ভোটে আপনারা এর জবাব দেবেন না?

তবে যুক্তরাষ্ট্রীয় নিয়ম অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী কোনো রাজ্যে গেলে মুখ্যমন্ত্রী তার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সেই পরিপ্রেক্ষিতে পশ্চিমবঙ্গের রাজভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে যাবেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতার রাজভবনেই রাত্রি যাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী। নিরাপত্তায় ছেয়ে ফেলা হয়েছে কলকাতা। শনিবার (২ মার্চ) তার নদীয়া জেলার কৃষ্ণনগরে জনসভা রয়েছে। পাশাপাশি ফের একবার বাংলায় এসে উত্তর ২৪ পরগণায় বারাসাতেও জনসভা করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৬ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০২৪
ভিএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।