ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৩ মে ২০২৪, ১৪ জিলকদ ১৪৪৫

ভারত

টিকিট পেলেন না বিজেপির, কোন দিকে যাবেন বরুণ গান্ধী?

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৫ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২৪
টিকিট পেলেন না বিজেপির, কোন দিকে যাবেন বরুণ গান্ধী? বরুণ গান্ধী

কলকাতা: কংগ্রেসের আমন্ত্রণে এখনো সাড়া দেননি গান্ধী পরিবারে অন্যতম সদস্য বরুণ গান্ধী। মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) কংগ্রেসের লোকসভার নেতা ও পশ্চিমবঙ্গ শাখার সভাপতি অধীর চৌধুরী তাকে দলে ফেরার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।

কিন্তু সেই আমন্ত্রণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই রাহুল গান্ধীর চাচাতো ভাই বরুণের কংগ্রেসে না ফেরার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন তার অনুসারী নেতা-কর্মীরা।

গত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে সংসদ সদস্য হয়েছিলেন বরুণ গান্ধী। এবার উত্তর প্রদেশের পিলিভিট আসনে বরুণকে টিকিট দেয়নি বিজেপি। সেই থেকে গুঞ্জন ছড়াচ্ছিল যে, ক্ষুব্ধ বরুণ ওই আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারেন। কারণ এর আগে তার মা মানেকা গান্ধী কংগ্রেস ছেড়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ওই কেন্দ্র থেকে জিতে লোকসভায় গিয়েছিলেন। পিলিভিট আসনটি মানেকা এবং বরুণের খাসতালুক।

এবার বরুণের বদলে সেই আসন থেকে জিতেন প্রসাদকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। কংগ্রেস ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন জিতেন। ফলে এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেসের আগ্রহ ছিল বরুণকে ঘরে ফেরানোর। কিন্তু আপাতত কংগ্রেসের সেই পরিকল্পনা ব্যর্থ।

জানা যাচ্ছে, উত্তর প্রদেশের সুলতানপুর আসনে বিজেপি প্রার্থী মা মানেকা গান্ধীর হয়ে প্রচারে নামবেন বলে মনস্থির করে ফেলেছেন বরুণ। তবে তিনি ভোটে না দাঁড়িয়ে মায়ের হয়ে প্রচারে নামবেন বলে তার ঘনিষ্ঠরা দাবি করলেও বরুণ নিজে এখনো মুখে কুলুপ এঁটে রয়েছেন। ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার ‘তুরুপের তাস’ আস্তিনের তলাতেই রেখে দিয়েছেন হয়তো। ফলে আদৌ তিনি মানেকা গান্ধীর হয়ে প্রচারে সাহায্য করবেন, নাকি তার অন্য কৌশল আছে, তা এখনো স্পষ্ট নয়।

বুধবার উত্তর প্রদেশের বিজেপি সভাপতি চৌধুরী ভূপেন্দ্র সিং বলেছেন, বরুণ আমাদের সঙ্গেই আছেন। দলীয় নেতৃত্ব তার জন্য বৃহৎ কিছু ভাবনা-চিন্তা করেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বরুণ বিজেপির সৈনিক। উনি যে বিজেপিতেই থাকবেন, সে বিষয়ে আমাদের কোনো সন্দেহ নেই। গান্ধী পরিবারের তকমা থাকা সত্ত্বেও বিজেপি তাকে তিনবার লোকসভার সদস্য করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩২ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২৪
ভিএস/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।