ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

ভারত

মনোনয়নপত্র জমা দিলেন রাহুল গান্ধী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫০ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩, ২০২৪
মনোনয়নপত্র জমা দিলেন রাহুল গান্ধী

কলকাতা: ভারতে জাতীয় নির্বাচনে (লোকসভা ভোট) করালার ওয়েনাড় আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন ওই কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী রাহুল গান্ধী।

বুধবার (৩ এপ্রিল) ওয়েনাড় জেলা কালেক্টরেট অফিসে গিয়ে নিজের মনোনয়নপত্র জমা দেন কংগ্রেসের বর্তমান সংসদ সদস্য।

এ সময় রাহুলের সঙ্গে ছিলেন তার বোন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধীসহ দলের অন্যান্য নেতারা।

মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে রাহুল বলেন, এই নির্বাচন গণতন্ত্র এবং ভারতের সংবিধানের লড়াই। একদিকে রয়েছে সেই শক্তিগুলো যারা ভারতের গণতন্ত্র ও দেশের সংবিধানকে ধ্বংস করতে চায় আর অন্যদিকে একটি শক্তি রয়েছে, যারা দেশের সংবিধানকে রক্ষা করছে, গণতান্ত্রিক প্রকৃতিকে রক্ষা করছে। কে কোন দিকে আছে, তা আপনাদের সবার কাছে বিষয়টা পরিষ্কার। কারা সংবিধানকে আক্রমণ করছে বা কারা এ দেশের গণতান্ত্রিক কাঠামোকে আক্রমণ করছে, এটা খুবই পরিষ্কার।

গণমাধ্যমকে রাহুল বলেন, ওয়েনাড়ের প্রতিটি মানুষ আমাকে ভালোবাসা, স্নেহ ও সম্মান দিয়েছে এবং আমাকে তাদের নিজেদের লোক ভাবে।

ওয়েনাড় আসনের ভোটারদের উদ্দেশে রাহুল বলেন, আপনাদের সংসদ সদস্য হওয়া আমার জন্য সম্মানের বিষয়। আমি কেবলমাত্র আপনাদের একজন ভোটার হিসেবে ভাবি না বা সেরকম আচরণও করি না। আমি যেমন আমার বোন প্রিয়াঙ্কাকে নিয়ে ভাবি, তারজন্য চিন্তা করি আপনাদের জন্য ঠিক ততটাই চিন্তা হয়। তাই ওয়েনাড়ের প্রত্যেকটা বাড়িতেই আমার মা, বাবা, ভাই, বোন রয়েছে। আমি আমার হৃদয়ের অন্তঃস্থল থেকে আপনাদের ধন্যবাদ জানাই।

নিজের সংসদীয় কেন্দ্রে ছাদ খোলা গাড়িতে করে একটি রোড শোতে অংশ নেন রাহুল। তাতে যোগ দেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী, দলের সাধারণ সম্পাদক কেসি বেণুগোপাল, কংগ্রেস নেত্রী দীপা দাশমুন্সি, কেরালার বিরোধী দলনেতা ভিডি সথীসনসহ দলের শীর্ষ নেতারা। রাহুলের সমর্থনে রোড শোতে হাজির ছিলেন দলীয় কর্মী সমর্থকরা।

উল্লেখ্য, ভারতে আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে কেরালার ওয়েনাড় আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন রাহুল গান্ধী। এ নিয়ে দ্বিতীয়বার কেন্দ্রটি থেকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে চলেছেন তিনি। এই কেন্দ্রে রাহুলের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী সিপিআইএম প্রার্থী অ্যানি রাজা ও বিজেপি প্রার্থী কে সুরেন্দ্রণ। একই দিনে সিপিআইএম প্রার্থী অ্যানি রাজাও তার মনোনয়নপত্র জমা দেন। বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেবেন বিজেপি প্রার্থী।

২০১৯ সালে এই আসনে সিপিআই প্রার্থী পিপি সুনিরকে বড় ব্যবধানে পরাজিত করে লোকসভার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন রাহুল গান্ধী। ৪ লাখ ৩১ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়ী হন তিনি। রাহুল পেয়েছিলেন ৭ লাখ ৬ হাজার ৩৬৭ ভোট। অন্যদিকে সুনির পেয়েছিলেন ২ লাখ ৭৪ হাজার ৫৯৭ ভোট।

গত লোকসভা নির্বাচনে কেরালার ওয়েনাড় কেন্দ্রের পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশের আমেঠি আসন থেকেও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন রাহুল। কিন্তু কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির কাছে ৫৫ হাজারের বেশি ভোটের ব্যবধানে হেরে যান তিনি।

আগামী ১৯ এপ্রিল থেকে ১ জুন অবধি মোট সাত ধাপে ভারতের ৫৪৩টি লোকসভা আসনে ভোটগ্রহণ হবে। গণনা ৪ জুন। স্বাধীনতার পর এই নিয়ে দ্বিতীয় বার দীর্ঘদিন ধরে (৪৪ দিন) চলবে এই ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া। ১৯৫১-৫২ সালে ভারতে প্রথম লোকসভা নির্বাচন প্রক্রিয়া চলে প্রায় চার মাস ধরে। ১৯৮০ সালে সবচেয়ে কম সময়ে ভোট প্রক্রিয়া শেষ হয়, মাত্র ৪ দিন ধরে চলে ওই ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০২৪
ভিএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।