ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৩ জুন ২০২৪, ০৫ জিলহজ ১৪৪৫

ভারত

ত্রিপুরায় স্ত্রী-ছেলের হাতে খুন হলেন এক ব্যক্তি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২৮ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০২৪
ত্রিপুরায় স্ত্রী-ছেলের হাতে খুন হলেন এক ব্যক্তি

আগরতলা(ত্রিপুরা): আবারো ত্রিপুরায় চাঞ্চল্যকর খুনের ঘটনা ঘটলো। এবার আগরতলা পার্শবর্তী দমদমিয়া এলাকায় নিজের স্ত্রী এবং ছেলের হাতে খুন হলেন এক ব্যক্তি।

ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্ত স্ত্রী এবং ছেলেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ।
 
মৃত ব্যক্তির নাম হরিবল বিশ্বাস। ঘটনা লেফুঙা থানাধীন দমদমিয়ার ১নং টিলায়। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় লেফুঙা থানা ও লেম্বুছড়া ফাঁড়িসহ পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা।

বৃহস্পতিবার(১৬ মে ) মৃত হরিবেল বিশ্বাসের বৃদ্ধ বাবা অনাথ বিশ্বাস এবং ভাই অভিযোগ করেন স্ত্রী কল্পনা বিশ্বাস, ছেলে সুমন বিশ্বাস মিলে বুধবার(১৫ মে) রাতে খুন করেছে। ছেলে সুমন বিশ্বাস বাইকের পেট্রোল কেনার জন্য বাবা হরিবল বিশ্বাসের কাছে টাকা চায়। হরিবল বিশ্বাস ছেলেকে বলেন টাকা শেষ হয়ে গেছে তাই এই মুহূর্তে টাকা দেওয়া সম্ভব নয়। তখনই ছেলে এবং বাবার মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। পাশে থাকা হরিবল বিশ্বাসের ভাই এসে ঝগড়া থামিয়ে দিয়ে যায়। তারপর রাতে হরিবল বিশ্বাসকে খুন করে পালিয়ে যায় ছেলে সুমন বিশ্বাস।

এদিন সকালে পাড়ার লোকেজন দেখতে পান বাড়ির উঠোনে হরিবেল বিশ্বাসের মৃতদেহ পড়ে আছে। বাড়িতে স্ত্রী এবং ছেলেকে না দেখতে পেয়ে সকলের সন্দেহ হয়। তখন তারা স্থানীয় লেফুঙ্গা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনার স্থলে আসে এবং তদন্ত শুরু করে। পরবর্তীতে পলাতক হরিবলের স্ত্রী ও ছেলেকে সিপাহীজলা জেলার বিশালগড় থেকে গ্রেপ্তার করে আনে পুলিশ। এই অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন মোহনপুর মহকুমা পুলিশ আধিকারিক ড. কমল বিকাশ মজুমদার।
 
সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি লেফুঙ্গা থানার ওসি সহদেব দাস জানান হরিবল বিশ্বাসের ভাইয়ের অভিযোগের ভিত্তিতেই স্ত্রী এবং ছেলেকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে। আদালতে তুলে তাদের আবার পুলিশ রিমান্ডে নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ চালানো হবে। জিজ্ঞাসাবাদে খুনের আসল কারণ উঠে আসবে বলে পুলিশের ধারণা।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৮ ঘণ্টা, মে ১৬,২০২৪
এসসিএন/এমএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।