ঢাকা, বুধবার, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১, ২৪ জুলাই ২০২৪, ১৭ মহররম ১৪৪৬

ভারত

আনার হত্যা

১৪ দিনের জেল হেফাজতে ‘কসাই’ জিহাদ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৭ ঘণ্টা, জুন ৭, ২০২৪
১৪ দিনের জেল হেফাজতে ‘কসাই’ জিহাদ

কলকাতা: ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যায় অভিযুক্ত ‘দক্ষ কসাই’ খ্যাত জিহাদ হাওলাদারের ১৪ দিনের জেল হেফাজত মঞ্জুর করেছেন আদালত।  

শুক্রবার (৭ জুন) জিহাদকে পশ্চিমবঙ্গের বারাসাত আদালতে নেওয়া হলে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজিএম) শুভঙ্কর বিশ্বাস এ রায় দেনে।

অর্থাৎ আগামী ২১ জুন জিহাদকে আবার বারাসাত আদালতে তোলা হবে।

অপরদিকে নেপালে ধরা পড়া সিয়াম হোসেনের বিষয়ে ডিএমপি কমিশনার জানিয়েছেন, সিআইডির রিমান্ডে আছেন ধৃত সিয়াম। যদি সিআইডি বিষয়টা অস্বীকার করেছেন।

আজ জিহাদকে আদালতে তোলা হলে বিচারক জানতে চান, কি পেলেন? সিআইডি তরফে বলা হয় অনেক কিছু পেয়েছি। তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদের প্রয়োজন। যেহেতু ১৪ দিনের বেশি পুলিশি রিমান্ডে রাখা যায় না। তাই জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। একইসঙ্গে আদালত জানান, প্রয়োজনও জেলে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারে সিআইডি।

নৃশংস হত্যার অভিযোগে জিহাদের নামে রাজ্য গোয়েন্দা পুলিশের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়। তাকে ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী ৩৬৪, ৩০২, ২০১ ও ১২০বি -এ চার ধারায় মামলা দেওয়া হয়েছে। প্রতিটিই জামিন অযোগ্য ধারা। এর মধ্যে ৩৬৪- হত্যার উদ্দেশ্যে অপহরণ, ৩০২- অপরাধমূলক নরহত্যা, ২০১- তথ্য লোপাট অর্থাৎ অস্ত্র ও মরদেহ পরিকল্পনা করে সরিয়ে ফেলা, ১২০বি- অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র (একাধিক ব্যক্তির সমন্বয়ে) অর্থাৎ এ ধরনের মামলায় সর্বোচ্চ রায় হিসেবে বিচারক আমৃত্যু যাবজ্জীবন বা মৃত্যুদণ্ড দিতে পারেন।  

গত ২৩ মে বনগাঁ থেকে ধরা পড়েন জিহাদ। এরপর ওই রাতেই, এমপি আনারের দেহাংশ উদ্ধারের জন্য তাকে নিয়ে তল্লাশি চালায় সিআইডি। ২৪ মে তাকে আদালতে তোলা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ তার রিমান্ডে চায়। ওইদিন সরকারি আইনজীবীর কাছে তার বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ তথ্য শুনে ১২ দিনের পুলিশি রিমান্ডের নির্দেশ দেন বিচারক। সেই নির্দেশ মোতাবেক জিহাদকে ৫ জুন  আদালতে তোলা হলে আরও দুদিনের রিমান্ডের নির্দেশ দেন বিচারক।

রাজ্য পুলিশ জিহাদকে একজন ‘দক্ষ কসাই’ হিসেবে বিচারকের সামনে পেশ করেছিল।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৪ ঘণ্টা, জুন ৭, ২০২৪
ভিএস/এসএএইচ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।