ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

তথ্যপ্রযুক্তি

মাস্কের টুইটারে অংশীদারত্ব পেলেন যারা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১, ২০২২
মাস্কের টুইটারে অংশীদারত্ব পেলেন যারা

৪৪০০ কোটি ডলারে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার কেনার পর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পরাগ আগারওয়াল, প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা নেড সিগাল, আইন ও নীতিমালাবিষয়কপ্রধান বিজয়া গাড্ডেকে সরিয়ে দিয়েছেন ইলন মাস্ক। এ কাণ্ডের পর তার টুইটারে অংশীদারত্ব পেয়েছেন সৌদি যুবরাজ আল-ওয়ালিদ বিন তালাল, ল্যারি এলিসন, জ্যাক ডরসি ও কাতার বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষ।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়, গত সপ্তাহে জনপ্রিয় মাইক্রো ব্লগিং সাইটটি কিনে নেন বিশ্বের এক নম্বর ধনী ইলন মাস্ক। তারপরই টুইটারের নতুন অংশীদারের নাম সামনে এলো। সাইটটির দ্বিতীয় বৃহত্তম বিনিয়োগকারী হিসেবে উঠে এসেছে সৌদি আরবের যুবরাজ আল-ওয়ালিদ বিন তালারের। কিংডম হোল্ডিং কোম্পানির মাধ্যমে টুইটারের প্রায় সাড়ে তিন কোটি শেয়ার স্থানান্তর করেছেন তিনি।

শেয়ার প্রতি ৫৪ দশমিক ২০ ডলার ধরা হলে তার বিনিয়োগের পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় ১৯০ কোটি ডলার। এর মাধ্যমে টুইটার নিয়ন্ত্রণকারী নতুন কোম্পানি এক্স হোল্ডিংসে অংশীদার হিসেবে নাম লেখান আল-ওয়ালিদ।

সফটওয়্যার কোম্পানি ওরাকলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি এলিসন ১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করেছেন মাস্কের নিয়ন্ত্রণাধীন টুইটারে। জ্যাক ডরসি টুইটারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক প্রধান নির্বাহী ছিলেন। অংশীদারত্ব পেতে তিনি মাস্ককে ১ কোটি ৮০ লাখের বেশি শেয়ার স্থানান্তর করেছেন। তার শেয়ারের মূল্য প্রায় ৯৭ কোটি ৮০ লাখ ডলার।

সভেরিন ওয়েলথ ফান্ড অব কাতার বা কাতারের সার্বভৌম সম্পদ তহবিল এক্স হোল্ডিংসে শেয়ারের জন্য ৩৭ কোটি ৫০ লাখ ডলার বিনিয়োগ করেছে।

টুইটার কিনতে ঋণও নিয়েছেন টেসলার মালিক ইলন মাস্ক। নিজের পকেট থেকে খরচ করেছেন ২ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। প্রায় ১ হাজার ৩০০ কোটি ডলার ঋণ নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের মর্গান স্ট্যানলি, ব্যাংক অব আমেরিকা, জাপানের মিতসুবিশি ইউএফজে ফিন্যান্সিয়াল গ্রুপ ও মিজুহো ব্যাংক, ব্রিটিশ ব্যাংক বার্কলেস এবং ফ্রান্সের ব্যাংক সোসিয়েট জেনারেল ও বিএনপি পারিবাস থেকে।

বাকি ৫২০ কোটি ডলার সংগ্রহ করেছেন বিনিয়োগকারী ও অন্যান্য বৃহৎ তহবিল থেকে।

টুইটার কিনে পরাগ, নেড সিগাল ও বিজয়া গাড্ডেকে সরিয়ে দেওয়ার পর আরও কর্মী ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা করছেন মাস্ক। প্রথম রাউন্ডে ২৫ শতাংশ কর্মী কমানোর পরিকল্পনা রয়েছে তার। মাস্কের আইনজীবী অ্যালেক্স স্পিরো চাকরি ছাঁটাইয়ের বিষয়টি তদারকি করছেন।  

২০২১ সালের শেষে টুইটারের কর্মী ছিল ৭ হাজারের বেশি। আর ২৫ শতাংশ কর্মী ছাঁটাই করলে প্রায় ২ হাজার কর্মী তাদের চাকরি হারাবে। এ নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে টুইটারের পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।  

সূত্র: আল জাজিরা

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৯ ঘণ্টা, ১ নভেম্বর, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।