ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

ইসলাম

আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো লালমনিরহাটের ইজতেমা

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০২৩
আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো লালমনিরহাটের ইজতেমা

লালমনিরহাট: আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে লালমনিরহাটের তিন দিনব্যাপী আঞ্চলিক ইজতেমা।

শনিবার (৭ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা কাকরাইলের মুফতি বোরহান উদ্দিন আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) ভোরে ফজরের নামাজ শেষে আমবয়ানের মধ্য দিয়ে জেলার পাটগ্রাম উপজেলার মাস্টারপাড়া এলাকায় ধরলা নদীর তীরে আঞ্চলিক ইজতেমা শুরু হয়।

জানা গেছে, তাবলিগ জামাত ও সাধারণ মসুল্লিরা প্রতিবছর লালমনিরহাটে আঞ্চলিক ইজতেমার আয়োজন করে। তারই অংশ হিসেবে চলতি বছর পাটগ্রাম উপজেলার ধরলা নদীর তীরে ইজতেমা শুরু হয়। বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজ শেষে ঢাকা কাকরাইলের মুফতি আরিফ হোসেনের আমবয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমা শুরু হয়।

ইজতেমায় ইন্দোনেশিয়া ও ভারতসহ বিভিন্ন দেশের তাবলীগ জামাতের মুরুব্বি ও খ্যাতমান আলেমরা বয়ান পেশ করেন। শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) জুমার নামাজে ইজতেমা মাঠে মুসল্লিদের ঢল নামে। প্রায় দুই লাখ মানুষের সমাগম ঘটে ইজতেমা মাঠে।

শনিবার শেষ দিন বয়ান শেষে দুপুর ১২টায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন ঢাকা কাকরাইলের মুফতি বোরহান উদ্দিন। প্রায় ২০ মিনিট মোনাজাতের সময় আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয় ধরলা তীর ইজতেমা মাঠ। বিগত দিনের পাপের কথা স্মরণ করে মহান আল্লাহর দরবারে ক্ষমা প্রার্থনা করেন মুসল্লিরা।

অন্যদের মধ্যে আঞ্চলিক ইজতেমা মাঠে আখেরি মোনাজাতে অংশ নেন লালমনিরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন, পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রুহুল আমিন বাবুল, পাটগ্রাম পৌর মেয়র রাশেদুল ইসলাম সুইট, সাবেক মেয়র শমসের আলী প্রমুখ।

জেলা ইজতেমা পর্যায়ক্রমে প্রতিটি উপজেলায় অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর পাটগ্রাম উপজেলা থেকে শুরু হয়েছে। আগামী বছর জেলা ইজতেমা হাতীবান্ধা উপজেলায় অনুষ্ঠিত হবে বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০২২
আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।