ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

আইন ও আদালত

খন্দকার মাহবুবের সম্মানে নিম্ন আদালত বসছে দুপুর ১২টায়

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২, ২০২৩
খন্দকার মাহবুবের সম্মানে নিম্ন আদালত বসছে দুপুর ১২টায় আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন

ঢাকা: সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেনের মৃত্যুতে ঢাকার নিম্ন আদালতের কার্যক্রম দুপুর ১২টা পর্যন্ত মুলতবি রাখা হয়েছে।

সোমবার (২ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় স্বাভাবিকভাবে বিচারকাজ শুরু হয়৷ 

ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর তাপস কুমার পাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।



তিনি বলেন, সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনের প্রতি সম্মান জানিয়ে ঢাকার মহানগর, জেলা, চিফ মেট্রোপলিটন ও চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিসটট্রেট আদালতের বিচারকাজ দুপুর ১২টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে৷ একইদিনে সুপ্রিম কোর্টের উভয় বিভাগের দ্বিতীয়ার্ধের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।  

এর আগে, ৩১ ডিসেম্বর রাত পৌনে ১১টার দিকে রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন ইন্তেকাল করেন।

রোববার (১ জানুয়ারি) বিকেল ৩টার পর সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গণে এ জানাজা সম্পন্ন হয়।  

জানাজায় প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি, অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. শহিদুল ইসলাম, সম্পাদক আবদুন নূর দুলাল, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী এবং আইনজীবীরা অংশ নেন।

জানাজা শেষে একইদিন সন্ধ্যায় তাকে বনানী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়৷  অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেনের জন্ম ১৯৩৮ সালের ২০ মার্চ। তার পৈত্রিক বাড়ি বরগুনার বামনা উপজেলায়। তিনি ১৯৬৭ সালের ৩১ জানুয়ারি আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হন।

১৯৭৩ সালে দালাল আইনে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য গঠিত আদালতের প্রধান কৌঁসুলি ছিলেন তিনি। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশের ফৌজদারি আইন বিশেষজ্ঞ হিসেবে পরিচিত।

বাংলাদেশ সময়: ১২১৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০২, ২০২২
কেআই/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।