ঢাকা, শুক্রবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

আইন ও আদালত

ইমো হ্যাকারকে পাঁচ বছরের সাজা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৫৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২৪
ইমো হ্যাকারকে পাঁচ বছরের সাজা

রাজশাহী: রাজশাহীতে এক ইমো হ্যাকারকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বেলা পৌনে ১২টার দিকে রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. জিয়াউর রহমান এই রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামির নাম রাজু আহমেদ (২৭)। তিনি নাটোর জেলার লালপুর উপজেলার মোহরকয়া ভাঙ্গাপাড়া গ্রামের আজিজুর রহমান সেন্টুর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আজ আসামি আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।  

রায় ঘোষণার পর তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

রায়ের পর দুপুরে রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনালে থাকা রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট ইসমত আরা বেগম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অ্যাডভোকেট ইসমত আরা বেগম জানান, অভিযুক্ত ব্যক্তি আসামি নিজে নারী সেজে সামাজিক মাধ্যম ইমোতে একটি অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন। এই অ্যাকাউন্টটি ব্যবহার করে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের এক নারী ও তার প্রবাসী বোন জামাইয়ের ইমো অ্যাকাউন্ট হ্যাক করেন রাজু। এরপর তার আইডি ফিরিয়ে দিতে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী ২০২২ সালের ১৪ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

এরপর বিষয়টি তদন্তের জন্য নাটোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে পাঠানো হয়। পুলিশ তদন্ত করে আসামির পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর ২০২৩ সালের ১৩ মার্চ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় সেদিনই পুলিশ বাদী হয়ে রাজুর বিরুদ্ধে লালপুর থানায় মামলা করে। মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে রায় ঘোষণা করা হলো আজ।

ইসমত আরা আরও জানান, আদালত একটি ধারায় আসামি রাজুকে দুই বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। জরিমানার টাকা অনাদায়ে আসামিকে আরও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে।  

এছাড়া মামলার অন্য একটি ধারায় আসামিকে তিন বছরের কারাদণ্ডের পাশাপাশি তিন লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানার এই টাকা অনাদায়েও ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আর প্রদত্ত সাজা একটির পর অন্যটি কার্যকর হবে বলে রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২৪
এসএস/এসআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।