ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

নাটোরে শিশু ধর্ষণ, যুবকের ১০ বছরের আটকাদেশ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৯, ২০২৩
নাটোরে শিশু ধর্ষণ, যুবকের ১০ বছরের আটকাদেশ

নাটোর: নাটোরের বড়াইগ্রামের একটি শিশু ধর্ষণ মামলায় মো. আজানুর রহমান (২৫) নামে এক যুবককে ১০ বছরের আটকাদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (০৯ জানুয়ারি) দুপুর সোয়া ২টার দিকে নাটোর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম এ আদেশ দেন।

তরে রায়ের সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

দণ্ডপ্রাপ্ত আজানুর রহমান উপজেলার কৃঞ্চপুর গ্রামের মো. মুক্তার হোসেনের ছেলে।

নাটোর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল (বিশেষ) পাবলিক প্রসিউকিটর অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, গত ২০১২ সালের ২ মে বড়াইগ্রাম উপজেলার কৃঞ্চপুর গ্রামের এক চাল ব্যবসায়ীর ১২ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়। ভুক্তভোগী তাদের নিজেদের নির্মানাধিন বাড়ি থেকে চাচার বাড়ি যাচ্ছিল। তখন ওই এলাকার সোহেল ও আজানুর রহমান নামে দুই যুবক তাকে অপহরণ করে একই এলাকার একটি পাম্প হাউজে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদি হয়ে ওই দুইজনকে আসামি করে একই বছরের ৩ মে বড়াইগ্রাম থানায় একটি মামলা করেন। পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মামলাটির তদন্ত শেষে আদালতে চার্জসিট দেন। ওই মামলার দীর্ঘ শুনানী ও সাক্ষ্য প্রমান শেষে বিচারক আজ এ আদেশ দিয়েছেন।

বিশেষ পিপি আনিসুর রহমান আরও জানান, ঘটনার সময় আসামির বয়স ১৫ বছর থাকায় শিশু আইনে তাকে এ সাজা দেওয়া হয়। মামলার প্রধান আসামি সোহেল উচ্চ আদালতের মাধ্যমে তার মামলার অংশ স্থগিত রাখায় জেলা আদালত শুধু আজানের বিচার কাজ সম্পন্ন করেছেন। তবে আসামিরা আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৯, ২০২২
এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।