ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

ঘিওরে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার দুই বোন, আটক সাত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১০৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২৩
ঘিওরে দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার দুই বোন, আটক সাত গ্রেপ্তাররা

মানিকগঞ্জ: মানিকগঞ্জের ঘিওরে চাচাতো দুই বোন দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ অভিযোগ দায়েরের পর সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ।

 

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার দিকে ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আটকরা হলেন- মো. হৃদয় খান (২২), মো. সোহেল রানা (২৫) মো. শাহ আলম (২৫), রনি মিয়া (২০), হাসান আলী, ফয়সাল বেপারী (২০), তামিম (২৬) ও ছাকিদ হোসেন (৩০)। তারা সবাই ঘিওর উপজেলার পয়লা ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের বাসিন্দা।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, দৌলতপুর উপজেলার খলসী গ্রামের ৩৫ ও ২৬ বছর বয়সী দুই চাচাতো বোন একটি অটোরিকশায় করে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ঘিওর বাজারের উদ্দেশে রওনা দেন। পথে বরংগাইল-দৌলতপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের তেরশ্রী মোড় নামক স্থানে পৌঁছালে অটোরিকশার চালক তাদের নামিয়ে দেন। তারা গাড়ির জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। একপর্যায়ে হেঁটে কিছুদূর যাওয়ার পর রাস্তা থেকে কয়েকজন যুবক ভুক্তভোগী এক তরুণীর মোবাইল নাম্বার চান। নাম্বার না দেওয়ায় জোরপূর্বক তাদের ফোন, স্বর্ণের চেইন ও টাকা ছিনিয়ে নেন। এর পর ভুক্তভোগী দুই তরুণীকে জোরপূর্বক রাস্তার পাশে একটি ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে আটজন ধর্ষণ করেন।

ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, ভুক্তভোগীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে। ঘিওরসহ জেলার বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আসামিদের আদালতে এবং ভুক্তভোগী দুই তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ০১০৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৬, ২০২৩
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।