ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১১ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

কুয়াকাটায় বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল, হোটেল-মোটেলে ৫০ শতাংশ ছাড়

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২৩
কুয়াকাটায় বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল, হোটেল-মোটেলে ৫০ শতাংশ ছাড়

পটুয়াখালী: মুজিব'স ক্যাম্পেইনের আওতায় সাগরকন্যা কুয়াকাটায় আগামী ৮ ও ৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে 'বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল কুয়াকাটা' ২০২৩।  

বাংলাদেশের আইকনিক, ডেস্টিনেশন, সংস্কৃতি ঐতিহ্যকে বিশ্ববাসী ও বাংলাদেশের মানুষের কাছে তুলে ধরার জন্য এবারের এই আয়োজন হচ্ছে বরিশাল বিভাগের কুয়াকাটায়।

এ উৎসবকে সামনে রেখে আনন্দ বিরাজ করছে পর্যটন নির্ভর সব ব্যবসায়ীদের মধ্যে। এ উৎসবকে স্বাগত জানিয়ে হোটেল-মোটেল ও রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা ২০ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশ ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে ইতোমধ্যে। পাশাপাশি ট্যুর অপারেটররা ২১০০ টাকায় ১ রাত ও ২ দিনের প্যাকেজ অফার করছে। সব পর্যটন নির্ভর ব্যবসায়ীরা এই দুইদিনের উৎসবে ব্যবসা না করে, শুধু পর্যটকদের সেবা করার ঘোষণা দিয়েছেন।

এ উপলক্ষে বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটি, জেলা, উপজেলা প্রশাসন স্টেক হোল্ডারদের নিয়ে দফায় দফায় সভা হয়েছে। সব অংশিজনরা জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কাছে এমন ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছে। ফলে আগত পর্যটকরা স্বস্তি পাবে সাগরকন্যা কুয়াকাটা ভ্রমণ করে।

এবারের ফেস্টিভ্যাল দ্বিতীয় দিনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন, বাংলাদেশ পর্যটন  করপোরেশনের চেয়ারম্যান রাহাত আনোয়ার ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মুহাম্মদ জাবেরের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

দুই দিনব্যাপী এই উৎসবে থাকছে কুয়াকাটা সৈকতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ফানুস, বিচ উৎসব, ঘুড়ি উৎসব, বিচ ফুটবল, বিচ ভলিবল, রাখাইন নৃত্য, গান, পুতুল নাচ, স্থানীয় সংস্কৃতি ও নানা ধরনের খাদ্যসামগ্রীর ফেস্টিভ্যাল স্টল, পর্যটনের মাধ্যমে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে তারুণ্যের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনারসহ নানা আয়োজন। সমৃদ্ধ বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার গল্পে বাংলার অপরূপ সৌন্দর্য নিয়ে সাজানো হয়েছে এবারের আয়োজন।

কুয়াকাটা হোটেল-মোটেল এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ইব্রাহিম ওয়াহিদ বলেন, আমরা আমাদের হোটেল-মোটেল ও রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের সঙ্গে আলোচনা করেই এই দুই দিনব্যাপী উৎসবকে সামনে রেখে ২০ শতাংশ থেকে শুরু করে ৫০ শতাংশের ছাড়ের ব্যবস্থা করিয়েছি।

কুয়াকাটা ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন টোয়াকের সভাপতি রুমান ইমতিয়াজ তুষার বলেন, সারা বছর আমরা কোনো কোনোভাবে পর্যটন খাত থেকে ব্যবসা করি। এবারের আয়োজন ঘিরে আমরা ব্যবসা না করেই কুয়াকাটায় আগত পর্যটকদের সেবা করার মানসে ২১শ টাকায় ২ দিন ও ১ রাতের প্যাকেজ ঘোষণা দিয়েছি। এই প্যাকেজে ট্রান্সপোর্ট থাকছে না। থাকছে ১ বার রাতের খাবার, ২ বার দুপুরের খাবার ও ২ বার সকালের নাস্তা। এক রুমের আবাসিক হোটেল ও হালকা নাস্তা।

হোটেল-মোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোতালেব শরীফ বলেন,  আমরা পর্যটকদের সুযোগ সুবিধাই প্রধান্য দেই৷ ২ দিন ব্যাপী কুয়াকাটা সৈকতে আয়োজিত এই ফেস্টিভ্যাল সাগরকন্যা কুয়াকাটার  স্থানীয়  সংস্কৃতি, কারুশিল্প, ঐতিহ্য, রন্ধন শিল্পী সহ নানাদিক  পৌঁছে যাবে  অনন্য মাত্রায়। আমরা এ উৎসবকে ঘিরে ২০ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়ের ব্যবস্থা করেছি।

বিচ ম্যানেজমেন্টের সদস্য সচিব ও কলাপাড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে অদম্য বাংলাদেশ। সোনার বাংলায় পর্যটনকে প্রসারিত করতে চলছে মুজিব’স বাংলাদেশ ক্যাম্পেইন। আর এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের ট্যুরিজমকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিতে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড বেসরকারি বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় আয়োজন করতে যাচ্ছে সাগরকন্যায় দুই দিনব্যাপী বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল কুয়াকাটা' ২০২৩।  

এ উপলক্ষে সব অংশিজনরা উৎসবকে স্বাগত জানিয়ে সব ক্ষেত্রে বিশেষ ছাড়ের ব্যবস্থা করেছে। অনুষ্ঠানকে সফল করতে যাবতীয় ব্যবস্থা করেছি।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৬, ২০২৩
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।