ঢাকা, বুধবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

লেখকের কোনো লিঙ্গান্তর হয় না: ইমদাদুল হক মিলন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪
লেখকের কোনো লিঙ্গান্তর হয় না: ইমদাদুল হক মিলন

ঢাকা: বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক ও কালের কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন বলেছেন, লেখকের কোনো লিঙ্গান্তর হয় না। নারী কি পুরুষ আমরা লেখকরা কখনোই গ্রহণ করব না।

নারী বা পুরুষের একজন লেখক হিসেবে তাকে আমরা বড় মনে করি।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাব মাওলানা আকরাম খাঁ হলে আমেরিকান বাঙালি হাবিবা এন শ’র ‘মার্কস বিহাইন্ড দ্যা স্টোন’ বইটির বাংলা অনুবাদ গ্রন্থ ‘বদ্বীপে বিশ্ব’র প্রকাশনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ইমদাদুল হক মিলন বলেন, ইউরোপ আমেরিকার লেখকরা তাদের আত্মজীবনীতে যেভাবে খোলামেলা কথা লিখতে পারেন, বাঙালি লেখকদের পক্ষে সেটা সম্ভব না। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় তার আত্মজীবনী বইয়ের নাম দিয়েছিলেন ‘অর্ধেক জীবন’। অর্ধেক জীবন বইটির নাম রেখেছিলেন কারণ তিনি জীবনে লিখতে পারেননি। আমাদের কিছু সীমাবদ্ধতা থাকে।

কালের কণ্ঠের প্রধান সম্পাদক বলেন, লেখিকা আমাকে বললেন বইয়ের পাঠক বোধহয় আগের মতো নেই। এটা সত্য কথা। প্রিন্টেড বইয়ের কদর একটু কমেছে। তারপরও আমারা বাঙালিরা বই বিমুখ হয়েছে এটা আমি বিশ্বাস করছি না। বিশ্বাস করতে ভালোও লাগছে না।

লেখিকার বইয়ের বিষয়ে ইমদাদুল হক মিলন বলেন, আমরা যারা বাংলা ভাষায় লিখি, আমাদের লেখা সেবাইরের পৃথিবীর লেখক ও পাঠকের হাতে যায় না। অনুবাদের কারণেই যায় না। হাবিবা এই বইটি লিখেছেন ইংরেজিতে। যেহেতু ইংরেজিতে লিখেছেন এ কারণে আমেরিকার বিভিন্ন সুধীজনের মনোযোগ আকর্ষণ করতে পেরেছেন। তিনি সেখানকার লেখকদের সাথে সম্পৃক্ত, তার (লেখিকার) দীর্ঘ ৫২ বছরের প্রবাস জীবনে সংগ্রামের মধ্য দিয়ে গেছেন ঠিকই। কিন্তু তিনি সাংস্কৃতিক আবহের মধ্যে থাকতে পেরেছেন ও লেখকদের সান্নিধ্যেও থাকতে পেরেছেন তিনি। এ কারণে এই বইটি যে গুরুত্বপূর্ণ আমার সন্দেহ নেই।  

কথাসাহিত্যিক ও বাংলাদেশ টেলিভিশন মহাপরিচালক নূরউদ্দিন জাহাঙ্গীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কথাসাহিত্যিক সালেহা চৌধুরী, ডিএনসিসির মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
এমএমআই/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।