ঢাকা, বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৯ মে ২০২৪, ২০ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

বন্ধুদের সঙ্গে টেপটেনিস বলে ক্রিকেট খেললেন মাশরাফি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
বন্ধুদের সঙ্গে টেপটেনিস বলে ক্রিকেট খেললেন মাশরাফি

নড়াইল: ঈদের তৃতীয় দিনে নড়াইলে এসেই স্কুল বন্ধুদের এসএসসি ১৯৯৯ ব্যাচের হয়ে টেপটেনিস বলে ক্রিকেট খেললেন মাশরাফি। নিজের দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন দেশসেরা এই ক্যাপ্টেন।

এই দলের ক্যাপ্টেনও ছিলেন তিনি।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকালে নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য এবং জাতীয় সংসদের হুইপ মাশরাফি বিন মোর্তুজা টুর্নামেন্ট খেলতে মাঠে নামেন তিনি।  

শৈশবের মাঠে বন্ধুদের সঙ্গে খেলতে নামলে আয়োজন অন্যরকম রূপ নেয়। মাঠে তখন উৎসাহ আর আনন্দের শেষ নেই। নিজের মাঠে নিজের বন্ধুদের সঙ্গে খেলে হাসি-ঠাট্টায় মেতে ছিলেন দেশসেরা ক্যাপ্টেন। চিরচেনা এই মাঠেই মাশরাফির শৈশবের ক্রিকেটের হাতেখড়ি।

আয়োজক সূত্রে জানা যায়, ঈদের পরদিন ১২ এপ্রিল থেকে নড়াইলে শুরু হয়েছে ৩২ দলের স্কুল ব্যাচ ভিত্তিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। নড়াইল সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৯৯০ থেকে ২০২১ পর্যন্ত ৩২ দলের টুর্নামেন্ট এটি। প্রতিটি দলে কোচ ম্যানেজারসহ ২০ জন করে সদস্য প্রতিনিধিত্ব করছে।

ঈদের পরদিন থেকে শুরু হওয়া চরম উত্তেজনার এই ক্রিকেট খেলায় অংশগ্রহণ করতেই ঈদের ছুটিতে বাড়ি এসেছে নানা জায়গায় চাকরি করা আর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে উচ্চশিক্ষা নেওয়া ব্যচের বন্ধুরা। গরম আর রোদেও তাদের আনন্দের শেষ নেই।

মাঠটিকে দুটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিযোগিতায় ৩২টি দল দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে অংশ নিচ্ছে। মাঠের চারপাশে রঙিন পতাকায় সজ্জিত করাসহ ছোট ছোট ৩২টি প্যান্ডেল নির্মাণ করা হয়। নক আউট পদ্ধতির ৮ ওভারের খেলায় শুধু চার-ছক্কার ছড়াছড়ি। কাঠ ফাটা রোদে অনুষ্ঠিত ম্যাচের পুরোটা সময় জুড়ে ছিল চরম উত্তেজনা।

খেলা শেষে মাশরাফি বলেন, এই টুর্নামেন্টের উদ্দেশ্য ৩টা। এর মধ্যে অন্যতম  ঈদের পরে পুনর্মিলনই এর সঙ্গে ক্রিকেটকে উজ্জীবিত করা যাতে আমাদের ছেলেরা অন্য কোনো বাজে দিকে মন না দিয়ে খেলায় ফিরতে পারে। সর্বোপরি এতগুলো ব্যচের ছেলেরা নিজেদের স্কুলের মাঠে খেলছে এটা অনেক আনন্দের। আমি এবং আমার স্কুলের বন্ধুরাও খুব আনন্দ পেয়েছে এই টুর্নামেন্ট খেলে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।