ঢাকা, বুধবার, ২ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০ মহররম ১৪৪৬

জাতীয়

পাথরের নিচে লুকিয়ে আনা হচ্ছিল ২০০ বস্তা ভারতীয় চিনি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১১২ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০২৪
পাথরের নিচে লুকিয়ে আনা হচ্ছিল ২০০ বস্তা ভারতীয় চিনি জব্দকৃত চিনির চালান ও ইনসেটে গ্রেপ্তার দুই চোরাকারবারি

সিলেট: বিগত দিনে বালুর নিচে করে পাচারকালে সিলেটে ধরা পড়ে একাধিক চিনির চালান। এবার চোরাকারবারিরা কৌশল বদলেছে।

এবার পাথরের নিচে করে পাচারকালে ধরা পড়ে ২০০ বস্তার চিনির চালান।   

শুক্রবার (১৫ জুন) সিলেট-তামাবিল সড়কের সুরমা গেট এলাকা থেকে এই চিনির চালান আটক করে এসএমপির শাহপরান (র.) থানা পুলিশ। সেই সঙ্গে আটক করা হয় দুই চোরাকারবারিকে। জব্দকৃত চিনির আনুমানিক মূল্য ১১ লাখ ৭৬ হাজার টাকা।
 
সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  

চোরাই চিনিসহ আটকরা হলেন - রাজশাহী জেলার বেলপুকুর থানাধীন বেল পুকুরিয়া এলাকার দুরুল হুদার ছেলে ট্রাকচালক মো. সালাউদ্দিন (২৮), একই জেলার দুর্গাপুর উপজেলার বহরমপুর গ্রামের মৃত আফাজ উদ্দিনের ছেলে ট্রাকের হেলপার মো. মহাশিন (২৪)।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভারতীয় চিনি সিলেট শহরের দিকে আসছে খবর মেলে। সিলেট-তামাবিল মহাসড়কের সুরমা গেট বাইপাস এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে একটি ট্রাককে থামানোর জন্য সিগন্যাল দেওয়া হয়। কিন্তু ট্রাকটি সিগন্যাল অমান্য করে দ্রুতবেগে পালানোর চেষ্টা করলে পিছু ধাওয়া করে ট্রাকসহ চালক ও হেলপারকে আটক করা হয়। গাড়ি তল্লাশি করে পাথরের ৩ ইঞ্চি স্তরের নিচে তিরপল দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় ভারতীয় ২০০ বস্তা চিনি জব্দ করা হয়।  প্রত্যেকটি বস্তার গায়ে ইংরেজিতে হোয়াইট ক্রিস্টাল সুগার অব অরিজিন ইন্ডিয়া, ডাবল সুলফি স্টেশন, শ্রী দত্ত ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড আরো অনেক শব্দ লেখা রয়েছে।  

প্রতি বস্তায় অনুমান ৪৯ কেজি করে ৯৮ হাজার কেজি ভারতীয় চিনি জব্দ তালিকায় দেখায় পুলিশ। প্রতি কেজি চিনির বাজার মূল্য ১২০ টাকা করে সর্বমোট ১১ লাখ ৭৬ হাজার টাকা দেখানো হয়।  

এ ঘটনায় এসএমপির শাহপরাণ (রহ.) থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

বাংলাদেশ সময়: ০১০৭ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০২৪
এনইউ/এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।