ঢাকা, বুধবার, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

মেহেদীর রং না মুছতেই নববধূর আত্মহত্যা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৩০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২২
মেহেদীর রং না মুছতেই নববধূর আত্মহত্যা রত্না বিশ্বাস

কুড়িগ্রাম: বিয়ের দুই মাসও হয়নি, মোছেনি হাতের মেহেদির রং। এরই মধ্যে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় রত্না বিশ্বাস (১৮) নামে এক নববধূ গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

 

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ভূরুঙ্গামারী সদর ইউনিয়নের নলেয়া গ্রামের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মাঝিটারি গ্রামে স্বামী বীরবলের বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বিরবল পেশায় একজন মাছ ব্যবসায়ী।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার নলেয়া গ্রামের হরিবালা বিশ্বাসের বড় ছেলে বীরবল বিশ্বাসের (২৬) সঙ্গে প্রায় দেড় মাস আগে বিয়ে হয় লালমনিরহাট জেলার কুলাঘাট গ্রামের তেরপু বিশ্বাসের মেয়ে রত্না বিশ্বাসের। বিয়ের পর থেকে পছন্দ অপছন্দ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। স্বামী বীরবল দুপুরে কাজের জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে নববধূ রত্না পরিবারের সবার অজান্তে নিজ ঘরে দরজা লাগিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।  

নিহতের স্বামী বীরবল বলেন, মাছের ব্যবসার জন্য কুড়িগ্রাম জেলা শহরের উদ্দেশে রওনা দিলে দুপুরে পথিমধ্যে মোবাইল ফোনে জানতে পারি আমার স্ত্রী গলায় ফাঁস দিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে বাড়ির উদ্দেশ রওনা দেই। সংসারে আমাদের মধ্যে বনিবনার কমতি ছিল না। তবে কি কারণে এমনটা করলো বুঝতে পারছি না।

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি আত্মহত্যা। মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯২৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১২, ২০২২
এফইএস/আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa