ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

রাজনীতি

বোনের মর্যাদা রক্ষায় জীবন দিতে পারি: কাদের সিদ্দিকী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০২৩
বোনের মর্যাদা রক্ষায় জীবন দিতে পারি: কাদের সিদ্দিকী গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সপরিবারে সাক্ষাৎ করেন কাদের সিদ্দিকী (ছবি: পিএমও)

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ভাই বলে ডেকেছেন জানিয়ে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ সভাপতি কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, আমিও বোনের মর্যাদা রক্ষা করতে পারি, তার জন্য জীবন দিতে পারি।  

রোববার (৮ জানুয়ারি) রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে জাতীয় পার্টির (জেপি) ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এ কথা করেন।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, বঙ্গবন্ধু নিহত হওয়ার পর দিল্লিতে যখন প্রধানমন্ত্রী (শেখ হাসিনা) আমাকে দেখেন, উনি আমাকে ভাই বলে ডেকেছিলেন। সেদিন যে গিয়েছিলাম, কথা হলো। সেখানেও বলেছেন, তোমাকে ভাই বলে ডেকেছি। আমি আজীবন ভাইয়ের মর্যাদা রক্ষা করব।  

তিনি বলেন, আমি ওরকম কাঁচা না। আমাকে যিনি ভাই বলে ডেকে তার মর্যাদা রক্ষা করতে পারেন, আমিও তার (বোন) মর্যাদা রক্ষা করতে পারি, তার জন্য জীবন দিতে পারি।  

ড. কামালের জোটে যাওয়া ছিল ভুল

২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জোট করাটা জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল ছিল বলে মন্তব্য করেন কাদের সিদ্দিকী।

তিনি বলেন, অনেকে মনে করতে পারেন, আমি বিএনপির সঙ্গে জোট করে নির্বাচনে গিয়েছিলাম, জোটে গিয়েছিলাম। আমি কোনোদিন বিএনপির সঙ্গে যাইনি। ড. কামাল হোসেনকে দেখে, আমি তার নেতৃত্বে জোটে গিয়েছিলাম। আমার মনে হয়েছে, ড. কামাল হোসেন হয়তো আমার চেয়েও বঙ্গবন্ধুর বেশি ভক্ত। কিন্তু উনি নেতা নন। এই অবস্থায় ওনার নেতৃত্ব দেওয়ার মতো অবস্থা নাই। ’

কাদের সিদ্দিকী বলেন, সবার শেষে (জোটে) গিয়েছিলাম। সবার আগে জোট থেকে বেরিয়েছি। নিশ্চয়ই আমি মনে করি, আমার জীবনে শ্রেষ্ঠ ভুল ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জোটে যোগ দেওয়া। আমি শয়তান নই, আমি একজন মানুষ, আমি ভুল করি।  

জেপির সভাপতি আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন ১৪ দলীয় জোটের সমন্বয়ক ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আমির হোসেন আমু, ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম, গণতান্ত্রিক পাটির সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন ও বাসদের আহ্বায়ক রেজাউর রশিদ খান।

এর আগে, গত ২৩ ডিসেম্বর রাতে সপরিবার গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন কাদের সিদ্দিকী। এরপর রাজনৈতিক অঙ্গনে নানা গুঞ্জন চলছে। এর মধ্যেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের শরিক জেপির সম্মেলনে যোগ দিলেন তিনি।

২০১৮ সালে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোকে নিয়ে ঐক্যফ্রন্ট গঠন করা হয়েছিল। এতে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগও ছিল। ভোটের পর কাদের সিদ্দিকীর খুব একটা তৎপরতা দেখা যায়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৮, ২০২৩
এমইউএম/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।