ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

রাজনীতি

চীনা কমিউনিস্ট পার্টির নেতাদের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
চীনা কমিউনিস্ট পার্টির নেতাদের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক

ঢাকা: বাংলাদেশে সফররত চীনা কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল। মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে গুলশানের ওয়েস্টিন হোটেলে এই বৈঠক করেন তারা।

বৈঠকে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের ভাইস মিনিস্টার চেন ঝু, ঢাকায় নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জি মিংসহ ছয় সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

অপরদিকে বিএনপির পক্ষে ছিলেন দলটির ভাইস-চেয়ারম্যান ও বিমানবাহিনীর সাবেক প্রধান অবসরপ্রাপ্ত এয়ার ভাইস মার্শাল আলতাফ হোসেন চৌধুরী, আব্দুল আওয়াল মিন্টু, আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল।

বৈঠকের আগে চেন ঝু চীনের ক্ষমতাসীন চীনা কমিউনিস্ট পার্টির ২০তম কংগ্রেস সম্পর্কে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাদের ব্রিফ করেন।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য বৈঠকে যোগ দেওয়া বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়ালের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তারা রিসিভ করেননি।

বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান বাংলানিউজকে বলেন, চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আমন্ত্রণে দলের পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দল হোটেল ওয়েস্টিনে গিয়েছিলেন। তারা আলাদাভাবে কোনো বৈঠক করেছেন কি না সে বিষয়ে আমার জানা নেই। তবে একটি সূত্র জানায়, কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক বিভাগের ভাইস মিনিস্টারের ব্রিফিংয়ের পর তারা আলাদাভাবে বিএনপি নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।  

বিএনপি প্রতিনিধি দলে বাবা-ছেলে, নেতাদের ক্ষোভ: এদিকে বিএনপির পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দলে ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু ও তার বড় ছেলে তাবিথ আউয়াল যোগ দেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দলটির কয়েকজন নেতা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির এক নেতা বাংলানিউজকে বলেন, বিএনপি এত বড় দল। এই দলে আর কি কোনো নেতা নেই? চীনা কমিউনিস্ট পার্টির আমন্ত্রণে হোটেল ওয়েস্টিনে যে অনুষ্ঠান ছিল সেখানে অন্য নেতারাও যেতে পারতেন। একই অনুষ্ঠানে বাপ-ছেলের যাওয়াটা সমীচীন হয়নি।  

এ বিষয়ে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান বাংলানিউজকে বলেন, দলের ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরীও গিয়েছিলেন। একই অনুষ্ঠানে বাপ-ছেলের যাওয়ার বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি হেসে বলেন এ বিষয়ে আমরা কিছু বলতে পারি না। তাদেরকে দাওয়াত দিয়েছে, তারা গিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২৩
এমএইচ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।