ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

সংবিধান সংশোধন করে ক্ষমতার ভারসাম্য সৃষ্টি করা উচিত: চুন্নু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২৩
সংবিধান সংশোধন করে ক্ষমতার ভারসাম্য সৃষ্টি করা উচিত: চুন্নু

ঢাকা: জাতীয় পার্টি (জাপা) মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, দেশের সব ক্ষমতা একজনের হাতে। একজনের হাতে সব ক্ষমতা থাকলে তিনি স্বৈরাচার হতে বাধ্য।

ক্ষমতার ভারসাম্য জরুরি হয়ে পড়েছে। প্রয়োজনে সংবিধান সংশোধন করে ক্ষমতার ভারসাম্য সৃষ্টি করা উচিত।  

শনিবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা শেরাটন হোটেল মিলনায়তনে ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল আয়োজিত জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের সঙ্গে ‘ক্ষমতা শক্তিশালী করণের উপর কৌশলগত এক পরিকল্পনা’ কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন।

জাপা মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, সংবিধানের ৭০ ধারার কারণে সংসদ সদস্যদের মুখ বন্ধ হয়ে আছে। আবার, যিনি ক্ষমতাসীন দলের প্রধান তিনিই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাহী বিভাগের প্রধান। আবার আইন সভার প্রধানও তিনি। সংবিধানের ৪৮ ধারার কারণে রাষ্ট্রপতি প্রায় সব সিদ্ধান্তে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ নিতে বাধ্য। তাই সাংবিধানিকভাবেই সব ক্ষমতা এক ব্যক্তির হাতে ন্যাস্ত হয়েছে।

জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান আহসান আদেলুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত কর্মশালায় মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, দুর্নীতি, দুঃশাসন, চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি ও দলবাজির কারণে দেশের মানুষ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির ওপর অনাস্থা প্রকাশ করেছে। দেশের মানুষ আর আওয়ামী লীগ ও বিএনপিকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় দেখতে চায় না। দেশের মানুষ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বিপরীতে বিকল্প শক্তি দেখতে চায়। দেশের মানুষ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বিপরীতে জাতীয় পার্টিকে বিকল্প শক্তি হিসেবে দেখতে চায়। তাই জাতীয় পার্টিকে আরও শক্তিশালী সংগঠনে পরিণত করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান চুন্নু।  

কর্মশালায় আরও উপস্থিত ছিলেন ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনালের চিফ অব পার্টি ডানা আই গোল্ড, ড. মো. আব্দুল আলিম, গোলাম মোস্তফা, লিপিকা বিশ্বাস ও সাম্মি লায়লা ইসলাম।

কর্মশালায় আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ফখরুল ইমাম, রানা মোহাম্মদ সোহেল, অ্যাডভোকেট মো. রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, আলমগীর সিকদার লোটন, নাজমা আক্তার, জহিরুল ইসলাম জহির, মোস্তফা আল মাহমুদ, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ড. মেহে জেবুন্নেসা রহমান টুম্পা, হেনা খান পন্নী, নাজনীন সুলতানা, মাসরুর মওলা, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান খান, নিগার সুলতানা রানী, আহসান আদেলুর রহমান আদেল, ইকবাল হোসেন তাপস, এইচ এম শাহরিয়ার আসিফ, জসিম উদ্দিন ভূইয়া, জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু, রাহগীর আল মাহি সাদ এরশাদ, মো. বেলাল হোসেন, মো. হেলাল উদ্দিন, সৈয়দ মঞ্জুর হোসেন মঞ্জু, জাতীয় পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদা রহমান মুন্নি, যুগ্ম দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ আলম, কেন্দ্রীয় সদস্য ফারহিন হাসান ও ইলোরা চৌধুরী।  
 
বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০২৩
এসএমএকে/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।