ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

রাজনীতি

বিএনপির পৃথিবী ক্রমেই ছোট হয়ে আসছে: কাদের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২৩
বিএনপির পৃথিবী ক্রমেই ছোট হয়ে আসছে: কাদের

ঢাকা: বিএনপির পৃথিবী ক্রমেই ছোট হয়ে আসছে মন্তব্য করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তাদের পৃথিবী আরও ছোট হয়ে যাবে।

বুধবার (০১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তা মোড়ে আয়োজিত এক শান্তি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, নৈরাজ্য, অপরাজনীতি ও অব্যাহত দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে এই শান্তি সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ।

সমাবেশে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, প্রথমে বিএনপির মিছিল দৈর্ঘ্য-প্রস্থে বড় ছিল। এখন প্রস্থ বড় হয়ে, দৈর্ঘ্য ছোট হয়ে যাচ্ছে। বিএনপির এই নীরব মিছিল দৈর্ঘ্যে কম, প্রস্থে বেশি। তার মানে কর্মী কমে গিয়ে নেতায়-নেতায় প্রস্থ বেড়ে যাচ্ছে।

এসময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, জাতীয় সংসদের ৬টি আসন আপনাদের ছিল। আপনারা পদত্যাগ করে যে কত বড় ভুল করেছেন, এটা যত দিন যাবে, ততই অনুধাবন করতে পারবেন।

বিএনপি নির্বাচন করা ছাড়েনি মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বিএনপি অভিযোগ করে এই সরকারের আমলে সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না। তারা বিদেশিদের কাছে নালিশ করে। অথচ প্রতিটি নির্বাচনে ঘোমটা পরা স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রকাশ্যে আসে। এই ঘোমটা পরা প্রার্থী হচ্ছে বিএনপির প্রার্থী।  

তিনি এসময় বলেন, ফখরুলের লজ্জা করে না, ঘোমটা পরা প্রার্থী দিয়েছেন, নেতাকর্মীদের মাঠে নামিয়েছেন, আর দোষ দিচ্ছেন সরকারের।

সরকার ভয় পেয়েছে- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের এমন মন্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার ভয় পেয়েছে, নাকি আপনারা ভয় পেয়েছেন? সরকার শান্তি সমাবেশ দিয়ে শুরু করেছে, এখনো শান্তি সমাবেশ করে যাচ্ছে। আর আপনারা সরকারের পতন, গণঅভ্যুত্থান, লাল কার্ড থেকে এখন কেন অন্তিম পদযাত্রায় নেমেছেন? তাহলে ভয় পেল কে?

বিএনপির কর্মসূচি গরম থেকে নরম হচ্ছে- মন্তব্য করে তিনি আরও বলেন, বিএনপির আন্দোলনে উত্তাপ আর ছড়ায় না। হান্ডি-পাতিল, লোটা-বালিশ-কম্বল নিয়ে সাত দিন আগে ঢাকায় এসে পিকনিক পার্টি করেছিল। ওই হান্ডি-পাতিল এখন কোথায়? পত্র-পত্রিকায় নিউজ দেয়, লোকজন ছুটে আসছে। এই আন্দোলনে এখন নেতাকর্মী ছাড়া কোনো পাবলিক আপনাদের সঙ্গে নেই।

নির্বাচন-আন্দোলনে খেলা হবে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী নির্বাচনে ফাইনাল খেলা হবে। সেদিন প্রমাণ হবে, কাদের পায়ের তলায় মাটি আছে, আর কাদের পায়ের তলায় মাটি নেই। সেটা প্রমাণ হবে কীভাবে? আপনারা (বিএনপি) নির্বাচনে আসবেন। সেখানে জনপ্রিয়তা যাচাই করবো। জনগণ ভোট দিয়ে যাচাই করবে।

সরকারের পায়ের তলায় মাটি নেই- বিএনপি নেতাদের এমন মন্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, আপনাদের (বিএনপি) পায়ের তলায় মাটি আছে? জনগণ আছে? বিএনপি মানে ভুয়া। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ৫৪ দল, ২৭ দফা, ১৪ দফা, আন্দোলন, সরকার পতন, লাল কার্ড, তত্ত্বাবধায়ক সরকার সব ভুয়া।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. হুমায়ুন কবিরের সঞ্চালনায় এই শান্তি সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য অ্যাড. কামরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, সুজিত রায় নন্দি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. দিলীপ কুমার রায়, সৈনিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি হারুনুর রশিদ হারুন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০১, ২০২৩
এসসি/এনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।