ঢাকা, সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৭ মে ২০২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

অপরাজনীতির নতুন সংস্করণ ভারতের পণ্য বর্জন: নাছিম

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৯ ঘণ্টা, মার্চ ২৮, ২০২৪
অপরাজনীতির নতুন সংস্করণ ভারতের পণ্য বর্জন: নাছিম

ঢাকা: বিএনপি-জামায়াতের অপরাজনীতির নতুন সংস্করণ ভারতের পণ্য বর্জনের নামে পণ্যমূল্য বাড়ানোর অপচেষ্টা বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম।

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি এখনো দেশকে সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র বানানোর অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারা আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধের বন্ধু ও প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতের বিপক্ষে কথা বলে। তারা রাজনৈতিক স্বার্থে আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সাথে বন্ধুত্ব নষ্ট করে বাংলাদেশের মানুষের স্বার্থ নষ্ট করতে চায়। দেশের মানুষের কষ্ট বাড়ানোর জন্য বিএনপি-জামায়াতের অপরাজনীতির নতুন সংস্করণ হলো ভারত-বিরোধিতা। তারা ভারতের পণ্য বর্জনের নামে পণ্যমূল্য বাড়ানোর অপচেষ্টা করে দেশের মানুষের স্বার্থের বিরোধিতা করে।

তিনি বলেন, আমাদের নিত্যপণ্য সামগ্রী আমরা সারা বিশ্ব থেকে আমদানি করি। এটি একটি স্বাভাবিক কার্যক্রম। পণ্যমূল্য যেখানে কম হবে, আমদানি খরচ যেখানে কম পড়বে ব্যবসায়ীরা সেখান থেকে আমদানি করবে। সারা দুনিয়ায় এটি  গ্রহণযোগ্য। সে বিষয়ে বিরোধিতা করে পক্ষান্তরে পবিত্র রমজানে আমাদের জিনিসগুলোর দাম যাতে আরও বৃদ্ধি করানো যায়, তার চেষ্টা করছে বিএনপি। তারা অসাধু ব্যবসায়ীদের উসকে দেওয়ার জন্য এসব কর্মকাণ্ড করছে। প্রতিবেশী দেশ থেকে আমদানি করলে আমাদের ব্যয় কম হবে, সেটি বর্জনের নামে তারা আমাদের মানুষের স্বার্থের বিপক্ষে কথা বলে। তারা মানুষের কষ্ট বাড়িয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চায়।

নাছিম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে আমাদের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রক্ষা করার জন্য চেষ্টা করেছেন। সেই স্বাধীনতাকে রক্ষা করার জন্য আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘ ২১ বছর লড়াই সংগ্রাম করেছেন। গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রক্ষা করার জন্য আমরা তাঁর নেতৃত্বে লড়াই করেছি। এই লড়াই সংগ্রামে কত প্রাণ যে দিতে হয়েছে তার হিসাব করে শেষ করা যাবে না। আমাদের গণতন্ত্রকে আমরা উদ্ধার করতে পারলেও আমাদের সেই স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রক্ষা করার জন্য এখনো আমাদের সংগ্রাম করে যেতে হচ্ছে।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ম. আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য নির্মল চ্যার্টার্জি, মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শহীদ সেরনিয়াবাত।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৭ ঘণ্টা, মার্চ ২৮, ২০২৪
এসকে/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।