ঢাকা, সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৭ মে ২০২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের উস্কানি দেওয়ার চেষ্টা করছে জামায়াত-বিএনপি: নাছিম

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ৯, ২০২৪
পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের উস্কানি দেওয়ার চেষ্টা করছে জামায়াত-বিএনপি: নাছিম

ঢাকা: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, পাহাড়ি সন্ত্রাসীদের নানাভাবে উস্কানি দেওয়ার চেষ্টা করছে জামায়াত-বিএনপি। তারা যদি ডাকাতদের যদি বিদেশি শক্তি হিসেবে মনে করে, তাহলে করতে পারে।

আমরা তাদের চোর ডাকাত ও সন্ত্রাসী হিসেবেই দেখি। এই সন্ত্রাসীরা বাংলাদেশের কোনো ধরনের ক্ষতি করতে পারবে না। যেকোনো মূল্যে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

সোমবার (০৮ এপ্রিল) শান্তিবাগ উচ্চ বিদ্যালয়ে ঈদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, বিএনপি আমাদের স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। তারা চায় আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ও মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধকে ধ্বংস করতে। এই অপশক্তি এখনও বাংলাদেশকে পিছে টেনে ধরার জন্য শেখ হাসিনার সরকারের কর্মকাণ্ডকে নানাভাবে বাধাগ্রস্ত করতে চায়। আমাদের বাংলাদেশের মানুষ সক্ষমতার জায়গায় যাক এটা তারা চায় না।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর গোলাম আযম, সাঈদীদের বাংলাদেশে রাজনীতি করার সুযোগ দিয়েছিল। জয়পুরহাটের যুদ্ধাপরাধী আব্দুল আলিম, সাকা চৌধুরীদের মতো যুদ্ধাপরাধীদের তারা বিএনপিতে জায়গা দিয়েছিল। বিএনপি জামাতীরা স্বৈরাশাসকদের উচ্ছিষ্ট খেয়ে বাংলাদেশের বিরোধিতা করেছিল। তাদের উত্তরসুরিরা এখনও বাংলাদেশের মানুষের বিপক্ষে ও তাদের স্বার্থের বিপক্ষে কাজ করছে।

নাছিম বলেন, জাতির পিতা বাঙালিদের মুক্তির লক্ষে স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ সৃষ্টি করছেন। তিনি দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য, উন্নত ও সমৃদ্ধ করার জন্য বাংলাদেশ পুনর্গঠনে কাজে হাত দিয়েছিলেন। সেই সময় মানুষের  অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান ও চিকিৎসা দেওয়া ছিলো খুব কঠিন কাজ। তিনি ধ্বংসস্তূপ থেকে একটি দেশকে পুনর্গঠনের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছিলেন। তখনও একটি গোষ্ঠী জাতির পিতাকে তার কাজ করতে নানাভাবে বাধা দিয়েছিল। বঙ্গবন্ধু পরিবারের বিপক্ষে অপপ্রচার, মিথ্যাচার স্বাধীন বাংলাদেশেও ছিল। তখন তারা ব্যাপকভাবে এই অপপ্রচারগুলো করতো।

বাংলাদেশ সময়: ০০৪৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৯, ২০২৪
এসকে/এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।