ঢাকা, সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৭ মে ২০২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

বর্তমান ফ্যাসিবাদ সরকারও টিকবে না: নজরুল ইসলাম খান

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৪৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ৯, ২০২৪
বর্তমান ফ্যাসিবাদ সরকারও টিকবে না: নজরুল ইসলাম খান

পাবনা (ঈশ্বরদী): বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য, বীর-মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, কোনো স্বৈরাচার, কোনো ফ্যাসিবাদ সরকার ইতিহাসে টিকে থাকে নাই, বর্তমান ফ্যাসিবাদ সরকারও টিকবে না।

সোমবার (৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় পাবনার ঈশ্বরদী পৌর এলাকায় দরিনারিচা মহল্লায় সূর্যের ধানের খোলায় বিরোধীদলীয় নেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণ ও হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ড ও যাবজ্জীবন কারাদণ্ডে দণ্ডিত ঈশ্বরদী উপজেলার বিএনপির ৪৭ নেতাকর্মীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং ইফতার মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, আজকে সব রাজনৈতিক দলমতের মানুষ বিশ্বাস করতে শুরু করেছে যে, বাংলাদেশের জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন করেছেন শহীদ জিয়া, বেগম খালেদা জিয়া। তারেক রহমানও করছেন।  

তিনি আরও বলেন, আজ ফ্যাসিবাদ আওয়ামী লীগের শাসক তার সমস্ত প্রশাসন, সমস্ত পুলিশের সমস্ত শক্তি একদিকে আর একদিকে নিরীহ নিপীড়িত জনগণ। যার নেতার এদেশ থেকে হাজার মাইল দূরে অবস্থান। তার কথাই এদেশের ৯৫ ভাগ মানুষ বর্তমান সরকারকে অগ্রাহ্য করে ভোটকেন্দ্র বর্জন করেছে। এটাই তো বিজয়। এটাই আমাদের রাজনীতি। আর এই বিজয়ের হাত ধরেই আমাদেরই বাস্তব বিজয় আসবে ইনশাআল্লাহ। ফেরাউন-নমরুদ টিকে নাই, হিটলার-মুসোলিনিও টিকে নাই, কোনো স্বৈরাচার, কোনো ফ্যাসিবাদ টিকে নাই, ইনশাআল্লাহ এরাও (স্বৈরাচার সরকার) টিকবে না।

বীর-মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম খান বলেন, আজ শহীদ জিয়াউর রহমানের নামের স্মৃতিকে মুছে ফেলার জন্য সবকিছু মুছে ফেলা হচ্ছে। তারপরে দেশের মানুষের হৃদয় থেকে জিয়াউর রহমানের নাম কী মোছা গেছে? খালেদা জিয়াকে জনগণের সামনে আসতে দেওয়া হচ্ছে না। মিথ্যা অভিযোগে কারারুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষের যদি রায় চায়, বাংলাদেশের মানুষ সবচেয়ে বেশি ভালোবাসেন কাকে? এদেশের ৯০ ভাগ মানুষ বলবে খালেদা জিয়া। জীবনে কোনো নির্বাচনে তিনি পরাজিত হননি। সেই মানুষটাকে নিপীড়ন করা হচ্ছে।  

বাঁকশালের বিরুদ্ধে লড়াই করে বিজয়ী হয়েছিলাম শহীদ জিয়ার নেতৃত্বে, স্বৈরাচার এরশাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে বিজয়ী হয়েছিলাম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে। আজকের ফ্যাসিবাদ সরকারের বিরুদ্ধে বিজয়ী হবো তারেক জিয়ার নেতৃত্বে। সেই লড়াই সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত হন। নিশ্চয় বাংলাদেশের সুদিন আসবে, সুবিচার পাবেন সবাই, নিরপরাধ মানুষ মুক্ত হবেন ইনশাআল্লাহ।  

বিএনপির চেয়ারপানসন খালেদা জিয়ার বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বিএনপির রাজশাহী বিভাগের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ওবাইদুর রহমান চন্দনের সঞ্চালনে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য দেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান ও কেন্দ্রীয় সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

এছাড়া বক্তব্য দেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য, সেলিম রেজা হাবিব কেএম আনোয়ারুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় কৃষকদলের সভাপতি কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মান্নান, যুগ্ম আহ্বায়ক আনিসুল হক বাবু, আবু ওবায়দা শেখ, নুর মোহাম্মদ মাসুম বগা, সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মাকসুদুর রহমান মাসুদসহ কারাবন্দি পরিবারের স্বজনরা।  

পরে ইফতার মাহফিলে সাবেক বিরোধীদলীয় নেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণ ও হামলা মামলার কারাগারে আটক মৃত্যুদণ্ড ও যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত ৪৭ নেতাকর্মীর মধ্যে ৩৩ নেতাকর্মীর পরিবারের মাঝে অটোরিকশা বিতরণ করা হয়। এবং তাদের সুস্থতা ও মঙ্গল কামনায় দোয়া করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৪৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৯, ২০২৪
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।