ঢাকা, বুধবার, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০ মহররম ১৪৪৬

রাজনীতি

জনগণের সরকার ক্ষমতায় এলে সব গুম-খুনের বিচার হবে: আমিনুল হক 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৮ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০২৪
জনগণের সরকার ক্ষমতায় এলে সব গুম-খুনের বিচার হবে: আমিনুল হক  গুম ও নিহত নেতাদের পরিবারকে বিএনপির সহায়তা

ঢাকা: দেশে জনগণের সরকার ক্ষমতায় এলে একদিন সব গুম ও খুনের বিচার হবে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদ্য সাবেক সদস্য সচিব আমিনুল হক।

শনিবার (১৫ জুন) দুপুরে পল্লবী-রূপনগর এলাকায় গুমের শিকার পল্লবী থানা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম, পল্লবী থানা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক তরিকুল ইসলাম তারা এবং গত ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টন পার্টি অফিসের সামনে পুলিশের গুলিতে নিহত মকবুল হোসেনের পরিবারকে ঈদুল আজহা উপলক্ষে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করার সময় তিনি এসব কথা বলেন।

 

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে এই আর্থিক সহযোগিতা দেওয়া হয়।

আমিনুল হক বলেন, এই অবৈধ আওয়ামী ডামি সরকার নিজেদের ক্ষমতার মসনদ দীর্ঘস্থায়ী করতে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গুম, খুন, হত্যা, নির্যাতন করছে। ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা ও বানোয়াট গায়েবি মামলা দিয়ে বিএনপির লাখো লাখো নেতাকর্মীকে ঘরছাড়া করেছে। হাজার হাজার নেতাকর্মীকে কারাগারে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু একদিন এই সরকারকে এসবের জন্য জবাব দিতেই হবে। দেশে জনগণের সরকার ক্ষমতায় এলে সব গুম ও খুনের বিচার হবে।

শুধু রাজনৈতিক ভিন্নমতের কারণেই প্রতিনিয়ত গুম করা হচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, আমাদের দলের কয়েক হাজার নেতাকর্মী গুম হয়েছে। এটা একটা মানবতাবিরোধী অপরাধ। বিএনপি চেষ্টা করছে গুম ও খুন হওয়া পরিবারগুলোর পাশে দাঁড়াতে এবং পাশে রয়েছে।  

তিনি বলেন, আওয়ামী সরকার আজ শুধুমাত্র শক্তি দিয়ে, রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে জনগণের ওপর নির্যাতন করে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে আছে।  

বিএনপির এই কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, নির্যাতন করে, মানুষের মৌলিক অধিকার হরণ করে কেউ কোনো দিন ক্ষমতায় থাকতে পারে না, পারবে ও না। এই অবৈধ স্বৈরাচারী সরকারও পারবে না। দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে, জনগণের ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে, মানুষের বেঁচে থাকার মৌলিক অধিকার রক্ষা করতে তারেক রহমানের নেতৃত্বে আন্দোলন চলছে। এই চলমান আন্দোলনকে চূড়ান্ত রূপ দিতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। সেই আন্দোলনের  জন্য সবাইকে প্রস্তুতি নিতে হবে।

এ সময় মহানগর উত্তর বিএনপির সদ্য সাবেক সদস্য মাহাবুব আলম মন্টু, পল্লবী থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক কামাল হুসাইন খান, যুগ্ম আহ্বায়ক আশরাফ আলী গাজী, আনিছুর রহমান, মোতালেব হোসেন হাওলাদার, মো. রহমান, ঢাকা মহানগর উত্তর স্বেচ্ছাসেবকদলের সদস্য সচিব মহসিন সিদ্দিকী রনী, মহানগর উত্তর ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান, ঢাকা মহানগর উত্তর মহিলা দলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক লাইলী বেগম উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৪ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০২৪
টিএ/এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।