ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২১ মে ২০২৪, ১২ জিলকদ ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

রূপপুর প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে দেশের শতভাগ বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ হবে

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০২০৮ ঘণ্টা, জুলাই ২৭, ২০২৩
রূপপুর প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে দেশের শতভাগ বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ হবে

পাবনা (ঈশ্বরদী): জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু বলেন, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের মাধ্যমে দ্রুতই দেশের শতভাগ বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হবে। বর্তমান সরকারের গৃহীত অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে বিদ্যুতের চাহিদা পূরণে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখবে এ মেগা প্রকল্প।

 

প্রকল্পটি পুরোপুরি চালু হওয়ার পর দেশের প্রবৃদ্ধি অর্জনে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হবে এবং অর্থনীতিতে শক্ত ভিত গড়বে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, যোগ করেন তিনি।

বুধবার (২৬ জুলাই) বিকেলে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলায় নির্মাণাধীন রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প এলাকার ইউনিট-১ ও ২ সরেজমিন পরিদর্শন করেন তিনি। এছাড়া প্রকল্প সংশ্লিষ্ট রাশিয়ান প্রকৌশলীদের পক্ষ থেকে প্রধান প্রকৌশলী মিস্টার খোশলেভ প্রকল্পের অগ্রগতি বিষয়ক একটি প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন। ২০২৩ সালে মেগা প্রজেক্টটির সিভিল ওয়ার্ক শেষ হতে পারে এবং ২০২৪ এর নভেম্বর নাগাদ এর অন্যান্য কাজ শেষ হতে পারে বলে প্রকৌশলীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকুর নেতৃত্বে পাবনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস, সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য শাহিন আক্তার, খালেদা খানম, শিরীন আহমেদ, জিন্নাতুল বাকিয়া, বাসন্তী চাকমা, শামসুন নাহার, নার্গিস রহমান, মনিরা সুলতানা, নাদিরা ইয়াসমিন জলি, রত্না আহমেদ, সালমা চৌধুরী, সেলিনা ইসলাম এবং ডরথী রহমান প্রকল্পটি ঘুরে দেখেন।


ডেপুটি স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের বহুমুখী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। সারা দেশে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হলে বিদ্যুতের চাহিদা বৃদ্ধি পাবে। তখন পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে উৎপাদিত ২৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ শিল্পাঞ্চলের চাহিদা পূরণ করবে। প্রধানমন্ত্রীর গৃহীত পদক্ষেপগুলো বাস্তবায়ন হলে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশের কাতারে বাংলাদেশ নোঙর করবে।

তার আগে ডেপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু বুধবার (২৬ জুলাই) দুপুর ১২টায় সড়কপথে বাংলাদেশ সুগারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউটে আসেন। সেখানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানে ম্যুরালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে তিনি ও স্থানীয় সংসদ সদস্য, জেলা, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ, সুগারক্রপের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তারা একটি করে বিএসআরআই-১ জাতের তালের চারা রোপণ করেন।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প পরিদর্শনকালে রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্পের প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম, পাবনার জেলা প্রশাসক মু. আসাদুজ্জামানসহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, জাতীয় সংসদ সচিবালয়, সংশ্লিষ্ট রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞ, প্রকৌশলী ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ০২০৫ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০২৩
এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি এর সর্বশেষ