ঢাকা, সোমবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৭ মে ২০২৪, ১৮ জিলকদ ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

হাতিয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হচ্ছেন এমপির ছেলে আশিক আলী 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০০৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
হাতিয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হচ্ছেন এমপির ছেলে আশিক আলী 

নোয়াখালী: ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রথম ধাপে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন আশিক আলী অমি। তিনি আওয়ামী লীগের রাজনীতিবিদ ও নোয়াখালী-৬ (হাতিয়া) আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য (এমপি) মোহাম্মদ আলী ও একই আসনের সাবেক এমপি  ওউপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আয়েশা ফেরদাউসের ছেলে।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে কেফায়েত উল্ল্যা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শামছুন্নাহার বেগমও বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন।

সোমবার (২২ এপ্রিল) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে চেয়ারম্যান পদে দুই প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে একাধিক প্রার্থী না থাকায় তারা তিনজন একক প্রার্থী হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবেন।  

জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নওয়াবুল ইসলাম জানান, প্রথম ধাপে নোয়াখালীর সুবর্ণচর ও হাতিয়া উপজেলায় নির্বাচন হবে। ২২ এপ্রিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল। এতে চেয়ারম্যান পদে দুই প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে অন্য কোনো প্রার্থী না থাকায় তিনজনকে একক প্রার্থী হিসেবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।  

এর আগে, হাতিয়ায় চেয়ারম্যান পদে নোয়াখালী-৬ (হাতিয়া) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আয়েশা ফেরদাউস, তার ছেলে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আশিক আলী এবং জাতীয় পার্টি থেকে মুসফিকুর রহমান মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে মো. কেফায়েত উল্যাহ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শামছুন নাহার বেগম মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন, সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর ছেলে আতাহার ইশরাক ওরফে সাবাব চৌধুরী। তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম। সেখানে সংসদ সদস্যের ছেলে সাবাব চৌধুরী মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি। আগামী ৮ মে সেখানে ভোটগ্রহণ হবে।  

১৭ এপ্রিল মনোনয়ন যাছাই-বাছাই, ২২ এপ্রিল প্রত্যাহার, ২৩ এপ্রিল প্রতীক বরাদ্দ ও আগামী ৮ মে উপজেলা দুটিতে ভোট হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০০০৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।