ঢাকা, সোমবার, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৮ মহররম ১৪৪৬

জাতীয়

রুবেলের খুনিদের আইনের আওতায় এনে মিরসরাইয়ে প্রশংসায় ভাসছেন যুবলীগ নেতা এলিট

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৮ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০২৪
রুবেলের খুনিদের আইনের আওতায় এনে মিরসরাইয়ে প্রশংসায় ভাসছেন যুবলীগ নেতা এলিট

ঢাকা: চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলায় আলোচিত স্কুলছাত্র রুবেলের খুনিদের গ্রেপ্তারে সহযোগিতা করে স্থানীয়দের প্রশংসায় ভাসছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা নিয়াজ মোর্শেদ এলিট। খুনিরা প্রভাশালী হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল।

উপজেলার মিঠানালা ইউনিয়নের শামসুদ্দীনের ছেলে খৈয়াছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র আরমান হোসেন রুবেল গত এক বছর আগে ১২ জুন রাতে সুফিয়া বাজার এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়। ১৭ জুন মিরসরাই শিল্প জোনের সাগরপাড়ে সাহেরখালী বেড়িবাঁধ এলাকা থেকে হাত বাঁধা অবস্থায় রুবেলের অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করেন নৌ পুলিশ।

এ ঘটনায় মামলা হলেও খুনিরা প্রভাশালী হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল। খুনিদের ভয়-ভীতি প্রদর্শনে উল্টো চাপে ছিল ভুক্তভোগী পরিবার। পরে এলাকাবাসীর পরামর্শে গত ঈদুল আজহা উপলক্ষে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য নিয়াজ মোর্শেদ এলিটের বাড়িতে উপস্থিত হয়ে নিহত রুবেলের মা শিরিনা আক্তার খুনিদের বিচারে তার জন্য সহায়তা চান। পরে খুনিদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনতে প্রশাসনকে অনুরোধ করেন এলিট। এরপরেই সন্দেহভাজন এক আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মিরসরাই থানা পুলিশ জানায়, মিরসরাই থানা পুলিশের সহায়তায় নৌ পুলিশ মোক্তার হোসেনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় নৌ পুলিশ বিস্তারিত বলতে পারবে।

নিহত রুবেলের ভাই বেলাল হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরা ছোঁয়ার বাইরে থাকা আমার ভাইয়ের খুনিদের গ্রেপ্তারে সহায়তা কামনা করে আমি মাকে নিয়ে যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা নিয়াজ মোর্শেদ এলিট ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করি। দুইদিনের মধ্যে সন্দেহভাজন এক আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিরা দ্রুত গ্রেপ্তার হবে আশা করি। আমার পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য নিয়াজ মোর্শেদ এলিট ভাইয়ের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

এদিকে আলোচিত এ হত্যা মামলার গ্রেপ্তারে সহযোগিতা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্থানীয়দের প্রশংসায় ভাসছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা নিয়াজ মোর্শেদ এলিট।

ফেসবুকে আর এম রুমি লিখেছেন, ধন্যবাদ লিডার। মিরসরাইবাসীর শেষ ভরসা নিয়াজ মোর্শেদ এলিট ভাই। আপনি আবারও প্রমাণ করলেন মিরসরাইবাসীর ভাগ্য উন্নয়ন এর শেষ ভরসা আপনি।

মো. ইউসুফ লিখেন, ‘ইনশাআল্লাহ লিডার আপনার মাধ্যমে একটা সঠিক বিচার হবে। এই মায়ের আহাজারিতে পুরা ১০ নম্বরের আকাশ বাতাস এক হয়ে যাচ্ছে। আল্লাহ আপনাকে দীর্ঘ নেক হায়াত দান করুক। ’

দেলোয়ার হোসাইন লিখেছেন, ‘একজন অসহায় মায়ের আর্তনাদ, আপনার কমিটমেন্ট। দ্রুততম সময়ের মধ্যে হত্যাকারী গ্রেপ্তার , এটি মিরসরাইবাসীর কাছে এক অনন্য ইতিহাস হয়ে থাকবে। লিডার আপনাকে অভিনন্দন। ’

এমডি আছিফুর রহমান লিখেছেন, ‘ধন্যবাদ মিরসরাইবাসীর শেষ ভরসা নিয়াজ মোর্শেদ এলিট ভাই। আপনি আবারও প্রমাণ করলেন মিরসরাইবাসীর ভাগ্য উন্নয়ন এর শেষ ভরসা আপনি। আপনার এমন কাজগুলো অবশ্যই প্রশংসার দাবিদার। ’

সাকিব মির্জা লিখেছেন, ধন্যবাদ আমাদের মিরসরাইবাসীর আগামীর ভবিষ্যৎ নিয়াজ মোর্শেদ এলিট ভাইকে। আপনি আবারও প্রমাণ করেছেন মিরসরাইয়ের মানুষ আপনার হাতেই নিরাপদ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৮ ঘণ্টা, জুন ২৩, ২০২৪
আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।