ঢাকা, বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৯ মে ২০২৪, ২০ জিলকদ ১৪৪৫

খেলা

তিন লাল কার্ডের ‘বিতর্কিত’ ম্যাচে মাঠ ছাড়ল মোহামেডান, জয়ী আবাহনী

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
তিন লাল কার্ডের ‘বিতর্কিত’ ম্যাচে মাঠ ছাড়ল মোহামেডান, জয়ী আবাহনী

হকি প্রিমিয়ার লিগে আজ এমন কিছুর দেখা যে মিলবে তার আভাস পাওয়া গিয়েছিল আগেই। তার ওপর খেলা যখন দুই চিরপ্রতিন্দ্বন্দ্বী আবাহনী-মোহামেডান।

জিতলে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের সামনে ছিল ছয় বছর পর লিগ জয়ের সুযোগ। দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও নাটকীয়ভাবে তৃতীয় কোয়ার্টারে ঘুরে দাঁড়িয়ে এগিয়ে যায় তারা। কিন্তু আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্তে নাখোশ হয়ে খেলা শেষ হওয়ার আগেই মাঠ ছেড়ে দেয় তারা। জয়ী ঘোষণা করা হয় আবাহনী লিমিটেডকে।  

সেই তৃতীয় কোয়ার্টারের দুই মিনিট ২৭ সেকেন্ড সময় বাকি থাকতেই বাঁধে বিপত্তি। তার কিছুক্ষণ আগে আবাহনীর পেনাল্টি কর্নার রুখে দেয় মোহামেডান। কিন্তু এরপর যা ঘটে যায় অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। দুই দলের খেলোয়াড়রা লিপ্ত হয়ে পড়েন ধাক্কাধাক্কিতে। যা সামলাতে হিমশিম খেতে হয় ম্যাচ অফিসিয়ালদের।  

পরিস্থিতি অনুকূলে আসার পর মোহামেডানের জুল পিদাউস ও আবাহনীর আফ্ফান ইউসুফকে হলুদ কার্ড দেখান আম্পায়ার। প্রায় মিনিট খানেক বাদে আবাহনীর মো. নাঈমুদ্দিন এবং মোহামেডানের দুই খেলোয়াড় দ্বীন ইসলাম ও তানভীর সিয়ামকে দেখানো হয় লাল কার্ড। তখনই খেলার বেঁকে বসে মোহামেডান। আবাহনী খেলতে রাজি থাকলেও মাঠের বাইরে চলে যায় সাদা-কালোরা। ম্যাচের আগের দিন হলুদ কার্ডের কারণে রাসেল মাহমুদ জিমির নিষেধাজ্ঞা নিয়ে কম 'নাটক' হয়নি।  

শেষ পর্যন্ত জিমিকে ছাড়াই খেলতে নামে  মোহামেডান। দারুণভাবে প্রত্যাবর্তনের পর ৩-২ গোলে এগিয়ে থেকে শিরোপা জয়ের পথেই ছিল তারা। কিন্তু মাঠ ছেড়ে যাওয়ার কারণে শেষ পর্যন্ত আবাহনীকে ৫-০ গোলে জয়ী ঘোষণা করেন আম্পায়ার।

এই জয়ে আবাহনীর পয়েন্ট হল ৩৭। নিজেদের শেষ ম্যাচে জয় তুলে নেওয়া মেরিনার্সের পয়েন্টও একই। তাই বাইলজ অনুযায়ী, শিরোপা নির্ধারণের জন্য প্লে-অফ ম্যাচ খেলার কথা। তবে গুঞ্জন আছে, দুদলকে যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হবে।

জমে ওঠা লিগের অঘোষিত ফাইনাল হিসেবে দেখা হচ্ছিল আজকের আবাহনী-মোহামেডান ম্যাচটি। মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে তৃতীয় মিনিটেই পেনাল্টি কর্নার থেকে আফফান ইউসুফের গোলে এগিয়ে যায় আবাহনী। ২৫ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন পুষ্কর খীসা মিমো।

এরপর মোহামেডানের হয়ে প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখেন মালয়েশিয়ান ফয়সাল বিন সারি। তার হ্যাটট্রিকে ৩-২ গোলে এগিয়ে যায় মোহামেডান। কিন্তু সেই লিড ধরে রাখার চেয়ে মাঠ ছেড়ে যাওয়াকেই উত্তম মনে করছে তারা।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
এএইচএস
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।