ঢাকা, রবিবার, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২১ শাবান ১৪৪৫

পর্যটন

পর্যটন মেলা শুরু ২ মার্চ 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৩
পর্যটন মেলা শুরু ২ মার্চ 

ঢাকা: ২ মার্চ শুরু হচ্ছে ‘১১তম ফার্স্ট ট্রিপ বাংলাদেশ ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ফেয়ার (বিটিটিএফ) ২০২৩’। রোববার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বেলা ১১টায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানানো হয়।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত এই মেলা শেষ হবে ৪ মার্চ। আন্তর্জাতিক এই মেলার আয়োজন করছে দেশের পর্যটন শিল্পের শীর্ষস্থানীয় বাণিজ্য সংগঠন ট্যুর অপারেটরস অ্যসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টোয়াব)। এ মেলার টাইটেল স্পন্সর হিসেবে থাকছে ফার্স্ট ট্রিপ।

সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (টোয়াব) সভাপতি শিবলুল আজম কোরেশী। সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন টোয়াবের পরিচালক (গণমাধ্যম ও প্রকাশনা) মোহাম্মাদ ইউনুছ।

মেলার প্রেক্ষাপট ও সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে বর্ণনা করেন টোয়াবের পরিচালক (বাণিজ্য ও মেলা) মো. আনোয়ার হোসেন। তিনি জানান, এবারের মেলা আগের বছরের তুলনায় অনেক আকর্ষণীয় ও জাঁকজমকপূর্ণ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই মেলার সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড, এফবিসিসিআই ও বাংলাদেশ ট্যুরিস্ট পুলিশ। ।

ইতোমধ্যে বিভিন্ন দেশের জাতীয় পর্যটন সংস্থা ও ট্যুরিজম অ্যাসোসিয়েশন তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে। মেলায় ভারত, নেপাল, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ভিয়েতনাম, জাপান ও তুরস্কের ট্যুর অপারেটর ও ট্রাভেল এজেন্টরা অংশগ্রহণ করবেন।

আন্তর্জাতিক ও দেশি এয়ারলাইন্স, ট্যুরিজম বোর্ড, ট্রাভেল এজেন্সি, ট্যুর অপারেটর, হোটেল, রিসোর্ট, ক্রুজ লাইনার, হসপিটাল প্রদর্শক হিসেবে অংশগ্রহণ করেছে।

মেলায় ৩টি হলে ১৪টি প্যাভিলিয়নসহ ১৪৬টি স্টল থাকবে। প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের জন্য আলাদা লাউঞ্জের ব্যবস্থা থাকবে। এ ছাড়া থাকবে মুজিব বাংলাদেশ কর্নার ও ফটোবুথ। মেলায় সাইড লাইন ইভেন্ট হিসাবে থাকবে বি টু বি সেশন, সেমিনার ও রাউন্ড টেবিল ডিসকাশন।

এছাড়া মেলায় আগত দর্শনার্থীদের জন্য প্রতিদিন সাংস্কৃতিক আয়োজন এবং দেশের পর্যটন গন্তব্যের ওপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হবে।

টোয়াবের সভাপতি ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের গভর্নিং বডির সদস্য শিবলুল আজম কোরেশী বলেন, টোয়াব বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পের শীর্ষস্থানীয় বাণিজ্য সংগঠন এবং বিটিটিএফ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এবং জনপ্রিয় পর্যটন মেলা। পর্যটন সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি এবং এর টেকসই উন্নয়ন এই মেলার প্রধান উদ্দেশ্য। আশা করছি যে, এবারের পর্যটন মেলা ব্যবসায়ী, দেশি-বিদেশি পর্যটক এবং পর্যটন শিল্পসংশ্লিষ্ট সবার মাঝে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা সৃষ্টি করবে। এই মেলা বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পের প্রসার ঘটাবে এবং বাংলাদেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু তাহের মুহাম্মদ জাবের, ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্ট লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন, মেলার টাইটেল স্পন্সর ফার্স্ট ট্রিপ এর চিফ অপারেটিং অফিসার হাসনাইন রফিক, এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক এমজিআর নাসির মজুমদার, টোয়াবের সদ্য সাবেক সভাপতি মো. রাফেউজ্জামান, টোয়াবের পরিচালক (অর্থ) মোঃ মনিরুজ্জমান মাসুম, টোয়ারের পরিচালক (জনসংযোগ) মো. সোহানুর রহমান স্বপন, পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও গবেষণা) আবুল ফয়সাল মো. সায়েম, পরিচালক (আইন) মো. নুরুজ্জামান সুমন, পরিচালক মো. সজীবুল-আল-রাজীব, পরিচালক এস এম বিল্লাল হোসেন সুমন, পরিচালক মো. ইব্রাহীম বলি নোমান, পরিচালক মো. সাইফুল ইসলাম, বিটিটিএফ স্টিয়ারিং কমিটির কনভেনার ও সদস্য, টোয়াবের সদস্য ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য মেলা উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় প্রবেশমূল্য ৩০ টাকা, তবে ছাত্র-ছাত্রী ও মুক্তিযুদ্ধাদের জন্য মেলায় প্রবেশ উন্মুক্ত থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৩
এমকে/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।