ঢাকা, শুক্রবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

সৌদি আরব

রিয়াদে জমকালো পিঠা মেলা

সৌদি আরব করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৫৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০১৪
রিয়াদে জমকালো পিঠা মেলা ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রিয়াদ: রিয়াদের সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন আমরা ক'জনের উদ্যোগ জমকালো পিঠা মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৫ ডিসেম্বর)  রিয়াদের আল তাবিয়া কমিউনিটি সেন্টারে স্থানীয় সময় দুপুর ১টা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত চলে এই দেশীয় পিঠার উত্সব।



মেলায় চিরায়ত বাংলার ঐতিহ্যবাহী দুধ চিতই, দুধ কলি, মুক শাপলা, পাটি সাপটা, ফুল পিঠা, নকশি পিঠা, ভিজা পিঠা, মাছের পিঠা, ভাপা পিঠা, জানের পিঠাসহ প্রবাসী গৃহিনীদের তৈরি শতাধিক প্রকারের পিঠা স্থান পায়।

আমরা ক'জনের অন্যতম সদস্য মুসা বাবুর প্রাণবন্ত উপস্থাপনায় পিঠা মেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের উপ-মিশন প্রধান মোহাম্মদ আইয়ুব।
Riad_2
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইয়ুব বলেন, আমাদের প্রবাসী সন্তানরা যখন দেশীয় ইতিহাস ঐতিহ্য ভুলতে বসেছে ঠিক সেই মুহূর্তে আমরা ক'জনের এই দেশীয় পিঠা উত্সব অবশ্যই প্রসংশনীয়।

তিনি বলেন, পিঠা মেলায় দলমত নির্বিশেষে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার বাংলাদেশিদের মিলনমেলা দেখে অনেক ভালো লাগছে।

এই ধরনের উদ্যোগ বাস্তবায়নে দূতাবাস সব ধরনের সহযোগিতা করবে বলেও আশ্বাস দেন মিশন উপ প্রধান মোহাম্মদ আইয়ুব।
Riad_3
দূতাবাসের কাউন্সিলর (পাসপোর্ট) খাইরুল আলাম, কাউন্সিলর (ইকোনমিক) ডক্টর আবুল হাসান, কাউন্সিলর (পলিট্রিক্যাল) মোশাররফ হোসেন, কাউন্সিলর (শ্রম) সারওয়ার আলম, কাউন্সিলর মনিরুল ইসলাম, প্রথম সচিব (লোকাল) ফারজানা মান্নানসহ দূতাবাসের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা এবং বাংলাদেশ কমিউনিটির বিশিষ্টজনরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

মেলার ব্যাপারে আমরা ক'জনের সভাপতি আজাদ কামাল বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের সংগঠন গত ২৫ বছর ধরে বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার লক্ষ্যে এবং তরুণ প্রজন্মকে দেশীয় কৃষ্টি কালচারাল শিক্ষাসহ তাদের অজানাকে জানানোর জন্য বিভিন্ন প্রোগ্রাম করে আসছে।
Riad_1
তিনি বলেন, আগামী দিনে আমাদের সন্তানদের দেশীয় ঐতিহ্যবাহী পিঠার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি তাদের পিঠা বানানো শিক্ষা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

মেলায় ২১টি স্টলের মধ্যে তিনটি ক্যাটাগরিতে ৯টি স্টলকে পুরস্কৃত করা হয়। এগুলো হচ্ছে- মিসেস কানন (প্রথম), মিসেস রূপা (দ্বিতীয়) এবং মিসেস হাসিনা (তৃতীয়)।

স্টলের সাজ-সজ্জার জন্য পুরস্কার দেওয়া হয় বাংলার পিঠা ঘর (প্রথম), পিঠাঘর( দ্বিতীয়) এবং ইকরা পিঠা ঘর (তৃতীয়)। মজাদার পিঠার জন্য বি-বাড়ীয়া পিঠা ঘর (প্রথম), জেরিন পিঠাপুলি (দ্বিতীয়) এবং ঘরোয়া পিঠা ঘরকে (তৃতীয়) পুরস্কার দেওয়া হয়।

র‍্যাফেল ড্রতে আব্দুল্লাহ আল সাদিক ডিপেল প্রথম, মিসেস আফসার দ্বিতীয় এবং  আব্দুল বাকের তৃতীয় হয়েছেন।

বাংলাদেশ সময় : ০৫৫৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সৌদি আরব এর সর্বশেষ