ঢাকা, বুধবার, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ শাবান ১৪৪৫

বইমেলা

কবিতার বই অনেক, তবে মান নিয়ে প্রশ্ন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৩
কবিতার বই অনেক, তবে মান নিয়ে প্রশ্ন ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: অমর একুশে বইমেলায় প্রতি বছর সহস্রাধিক কবিতার বই প্রকাশ হয়। মেলা শেষে দেখা যায়, বই প্রকাশের দিক থেকে গল্প-উপন্যাসসহ সাহিত্যের অন্যান্য ধারার চেয়ে কবিতার বই বেরিয়েছে বেশি।

কবিদের এই আধিক্যে খুশি হওয়ার কথা থাকলেও বিষয়টি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন অনেকে। লেখক ও প্রকাশকরা বলছেন, মেলা উপলক্ষে অনেকেই কবিতার বই লেখেন। কিন্তু ক’জনের লেখা সত্যিকারের কবিতা হয়ে উঠল, তা নিয়ে তাদের কেউ মাথা ঘামান না। কবিতার মধ্যে যে আবেগ ও কাব্যভাব থাকা দরকার, সেটি অনেকের লেখার মধ্যে নেই। অথচ শামসুর রাহমান, আল মাহমুদ, সৈয়দ শামসুল হক, হেলাল হাফিজ, মহাদেব সাহা, নির্মলেন্দু গুণদের লেখা কবিতা আজও মানুষকে আলোড়িত করে। কবিতার বইয়ের নামে কিছু মানহীন লেখার আধিক্যে পাঠকের মনে এক ধরনের বিরূপ প্রভাব পড়ছে। কবিতা ঘিরে মানুষের মধ্যে হারিয়ে যাচ্ছে উচ্ছ্বাস।

এবারের মেলার প্রথম ২২ দিনে নতুন বই এসেছে ৩ হাজার ১৫০টি। এর মধ্যে কবিতার বই সবচেয়ে বেশি ৯৯১টি। এ ছাড়া গল্পের বই এসেছে ৯৩৯টি, উপন্যাস ৪৪৩টি।

অভিযোগ আছে, মেলা এলে প্রতি বছর অনেকেই নিজের টাকা খরচ করে বিভিন্ন প্রকাশনী থেকে কবিতাসহ নানা বিষয়ে বই বের করেন। এসব বইয়ের লেখার মান নিয়ে তাই মাথা ঘামান না প্রকাশকরা। আবার কবিতার বইয়ের বিক্রি কেমন—এ প্রশ্নের সরাসরি কোনো উত্তর মেলেনি প্রকাশকদের কাছ থেকে।

অন্বেষার প্রকাশক শাহাদাত হোসেন বলেন, মেলায় কবিতার বই বেশি আসে। কিন্তু বেশি বিক্রি হয় গল্প ও উপন্যাস। অনেকের আসলে বই আসে ঠিক, কিন্তু কবিতা হয়ে ওঠে না। নবীন লেখকরা লিখতে লিখতে একদিন ভালো করবেন।

অনন্যা প্রকাশনীর প্রকাশক মনিরুল হক বলেন, এক সময় একাডেমি প্রাঙ্গণের মেলায় কবিরা আসতেন। তারা কবিতার আসর জমাতেন। এখন আর আগের মতো কবিরা মেলায় আসেন না। এ ছাড়া এখন অনেক নবীন কবিতা লেখেন। মেলায় সবচেয়ে বেশি কবিতার বই প্রকাশ হলেও তেমন বিক্রি হয় না।

এত বইয়ের ভিড়ে প্রতিশ্রুতিশীল অনেক কবিও যে উঠে আসছেন না, এমন নয়। নতুন প্রজন্মের অনেক ভালো কবি দারুণ সব কবিতায় পাঠকদের মন জয় করেছেন। শুধু বই প্রকাশ করে নয়; লিটল ম্যাগে অসংখ্য ভালো কবিতা প্রকাশ হচ্ছে। নতুনদের পাশাপাশি স্বনামধন্য লেখক-কবিদের বইও বের হচ্ছে।

আগামী প্রকাশনী থেকে এবার আনোয়ারা সৈয়দ হকের ‘৫০ প্রেমের কবিতা’ প্রকাশ হয়েছে। অনন্যা থেকে এসেছে মহাদেব সাহার ‘অন্তরে কে বাঁশি বাজায়’। ঐতিহ্য প্রকাশ করেছে হাসনাত আবদুল হাইয়ের কাব্যগ্রন্থ ‘হাজার বছরের নির্বাচিত কবিতা’। সময় প্রকাশনী থেকে এসেছে মুহম্মদ নূরুল হুদার ‘প্রেমের কবিতা’।

কবিতা ও কবিতার বই নিয়ে লেখক আনোয়ারা সৈয়দ হক বলেন, মেলায় কবিতার বইয়ের সংখ্যা অনেক। তবে কবিতা লিখলেই কবিতা হয় না। কবিতা আবেগের ব্যাপার। অনেকে কবিতা লেখার সময় বোঝেন না কতটুকু আবেগ দিতে হবে। কবিতা লিখতে লিখতে কবিদের এ সম্পর্কে ধারণা হয়। কবিতায় বেশি আবেগ থাকলেও সে কবিতা চলে না; আবার আবেগহীন কবিতাও চলে না।

বাংলাদেশ সময়: ২০১০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৩
এইচএমএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।