ঢাকা, রবিবার, ৯ আষাঢ় ১৪৩১, ২৩ জুন ২০২৪, ১৫ জিলহজ ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

তাপদাহের পরে সিলেটে স্বস্তির বৃষ্টি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০৫ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
তাপদাহের পরে সিলেটে স্বস্তির বৃষ্টি

সিলেট: তীব্র গরমে মধ্যে হাঁসফাঁস জনজীবনে ঘর থেকে বাইরে বের হওয়াই ছিল কঠিন। শুক্রবার (১৭ মে) পর্যন্ত ছিল তীব্র গরমের তাপপ্রবাহ।

পরে এদিন রাত ৯টার দিকে নেমে আসে স্বস্তির বৃষ্টি।

পরে মধ্যরাত থেকে আকাশ ভেঙে ভারী বৃষ্টি নামে সিলেটে। শনিবার (১৮ মে) সকাল ১০টা পর্যন্ত গুঁড়ি গুঁড়ি সেই বৃষ্টি হচ্ছিল সিলেটে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বৃষ্টি কমে এলেও আকাশ মেঘাচ্ছন্ন।

সিলেট আবহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শাহ মো. সজীব হোসাইন জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টার (শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা) বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ১০৮.১ মিলিমিটার। আর শনিবার সকাল ৬টা থেকে ৯টা পর্যন্ত এই ৩ ঘণ্টায় ১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

আগের দিন শুক্রবার সিলেটে ছিল কাঠফাটা রোদ। পরে রাতের বৃষ্টিতে কিছুটা স্বস্তি মেলে নগরজীবনে। গত কয়েক দিনের ভ্যাপসা গরমে একটু বৃষ্টির অপেক্ষায় ছিলেন মানুষজন। এই বৃষ্টির কারণে কমেছে দুর্ভোগ।

উল্লেখ্য, শুক্রবার পর্যন্ত গত ৪-৫ দিন সিলেটজুড়ে অসহনীয় গরমে ছিল প্রাণ ওষ্ঠাগত। ধারাবাহিক তাপমাত্রা বাড়ার কারণে গরমে অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে মানুষকে। এর আগে বৃহস্পতিবার (১৬ মে) সেটি চলতি মৌসুমের রেকর্ড ভঙ্গ করে। ওই দিন বছরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রায় পুড়ে সিলেট।

সিলেট আবহাওয়া অধিদপ্তর সিলেটের তথ্য মতে, গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় সিলেটে রেকর্ডকৃত তাপমাত্রা ছিলো ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস, বিকেল ৪টায় ৩৭.১ এবং ৬টায় ছিল ৩৭.২ ডিগ্রি। যা এই বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল। এছাড়া শুক্রবার ১২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৯ মিলিমিটার এবং বিকাল ৩টায় রেকর্ডকৃত তাপমাত্রা ছিল ৩৫ দশমিক ৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস। তবে রাত ১২টার পর থেকে ভোর পর্যন্ত ঝড়োবৃষ্টিতে স্বস্তি ফিরে নগরজীবনে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৩ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
এনইউ/এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।